বটি দিয়ে তৃণমূলকর্মীদের সবক শেখানোর দাওয়াই দিলেন বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পল

1288

বর্ধমান: তৃণমূল নেত্রীর অনুগামী ভাইদের সবক শেখানোর দাওয়াই দিলেন বিজেপির মহিলা মোর্চার রাজ্য সভাপতি অগ্নিমিত্রা পল। সোমবার মেমারি শহরে অনুষ্ঠিত দলের সভায় যোগদিয়ে অগ্নিমিত্রা পল সভায় উপস্থিত মহিলাদের উদ্দেশ্যে বলেন, “অস্ত্র ধরতে বলবো না। তবে বাড়িতে আঁশ বটি আছে তো। যদি বাড়িতে ঢুকে আপনাকে কেউ আক্রমণ করতে আসে, ধর্ষণ করতে আসে কিংবা শ্লীলতাহানি করতে আসে তাহলে আপনারা মহিলারা প্রথম সবাই এক হয়ে লড়াই করবেন। আর বাড়িতে থাকা আঁশ বটি দিয়ে দিদির ছোট্ট ছোট্ট ভাইদের পুরুষত্বটা কি করে বের করে দিতে হয় সেটা আপনারা বটি দিয়ে করে দেখিয়ে দেবেন।” বিজেপি নেত্রীর এমন মন্তব্য ঘিরে শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

মেমারির একটি অনুষ্ঠান বাড়িতে এদিন বিজেপির মহিলা মোর্চার সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। সেই সভায় নেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল ছাড়াও জেলা বিজেপি সভাপতি সন্দীপ নন্দি সহ অন্যান্য নেত্রীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। মেমারিতে সভা করতে আসার আগে বর্ধমান জেলা পার্টি অফিসেও তিনি দলীয় বৈঠক সারেন। বর্ধমানের অধিষ্ঠাত্রী দেবী সর্বমঙ্গলা মন্দিরেও তিনি পুজো দেন। মেমারির সভা থেকে অগ্নিমিত্রা পল আরও বলেন, বাংলার মহিলারা দুর্গা। বিজেপির মহিলারা ছাড়াও যদি তৃণমূল, সিপিএম কিংবা কংগ্রেসের মহিলারা কোথাও আক্রান্ত হলে তিনি সেখানে যাবেন। পাশাপাশি নিজের দলের কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমাকে দিদি নামে ডাকবেন না। কারণ আমি দিদি হতে চাই না। আমি আপনাদের দিদিভাই। তিনি দিদিভাই নামেই ওনাকে ডাকার অনুরোধ রাখেন দলীয় কর্মী ও সমর্থকরদের কাছে।

- Advertisement -

বিজেপি নেত্রীর এই বক্তব্য প্রসঙ্গে তৃণমূলের রাজ্যের মুখপাত্র তথা পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সহ সভাধিপতি দেবু টেডু বলেন, গুজরাট ও উত্তরপ্রদেশের মত পশ্চিমবঙ্গেও হিংসার রাজনীতি কায়েম করতে চাইছে বিজেপি। তবে, ওদের মুখের বুকনিই সার। গোটা বাংলার মানুষ জানেন, বিজেপির মহিলা কর্মী সবথেকে বড় ভয় বিজেপির নেতাদের নিয়েই। এই সবের কারণে বাংলার মানুষ ওদের দিক থেকে মুখ ঘুরিয়ে নিচ্ছে সেটা ওরা বুঝতেও পেরে গিয়েছে। তাই ওরা এখন ওদের দলের কর্মীদের আঁশ বটি নিয়ে তৃণমূলের কর্মীদের ওপর হামলা চালানোর উপদেশ দিচ্ছে। দেবু টুডু এদিন স্পষ্ট জানিয়ে দেন, বটি নিয়ে হামলা চালাতে এলে বিজেপির লোকজনকেও যোগ্য জবার দেবার জন্য তৈরি রয়েছে তৃণমূলের কর্মী ও সমর্থকরা।