বিজেপিতে যোগ দিতেই আগ্নেয়াস্ত্র সহ গ্রেপ্তার নেতার ভাই

176

বর্ধমান, ২০ ফেব্রুয়ারিঃ বাম আমলে পূর্ব বর্ধমানের মঙ্গলকোটের ত্রাস ছিলেন দাপুটে সিপিএম নেতা ডাবলু আনসারি। ২০১১ সালে রাজ্য রাজনীতিতে পালা বদলের পর ডাবলুর ত্রাস মুক্ত হন মঙ্গলকোটের মানুষ। সেই ডাবলু আনসারি গত বুধবার কলকাতায় গিয়ে দিলীপ ঘোষের হাতধরে বিজেপিতে যোগ দেন। এর দু’দিন কাটতে না কাটতেই আগ্নেয়াস্ত্র সহ গ্রেপ্তার হলেন তাঁর ভাই বাবলু আনসারি। গুসকরা ফাঁড়ির পুলিশ শুক্রবার রাতে গুসকরা পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ড এলাকা থেকে বাবলু আনসারিকে গ্রেপ্তার করে।ধৃত বাবলু আনসারির কাছ থেকে একটি পিস্তল ও এক রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার হয়েছে বলে পুলিশ দাবি করেছে। জেলা বিজেপি সভাপতি সন্দিপ নন্দী জানিয়েছেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে তৃণমূল পুলিশকে কাজে লাগিয়ে বিরোধীদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসাচ্ছে।

মঙ্গলকোটের বাসিন্দাদের কথায় জানা গিয়েছে, বাম আমলে কার্যত মঙ্গলকোটের বেতাজ বাদশা ছিলেন ডাবলু আনসারি। তিনি মঙ্গলকোটে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিলেন। এমনটাই অভিযোগ বাসিন্দাদের। ডাবলু আনসারি বিরুদ্ধে বরাবরই সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে সেই সময়ে সোচ্চার হতেন বিরোধী নেতা-কর্মীরা। ২০১১ সালে রাজ্যে পালা বদলের সাথে সাথেই ডাবলু মঙ্গলকোট ছাড়া হন। তাঁর ভাই বাবলু আনসারিও মঙ্গলকোট ছেড়ে গুসকরায় শ্বশুরবাড়িতে থাকতে শুরু করেন। ডাবলু আনসারি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার দু’দিনের মাথায় তাঁর ভাই বাবলু আগ্নেআস্ত্র সহ গ্রেপ্তার হওয়ায় রাজনৈতিক মহলে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

- Advertisement -

এদিন সুনির্দিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে পুলিশ ধৃতকে বর্ধমান আদালতে পেশ করে। তদন্তকারী অফিসার তদন্তের স্বার্থে আদালতের কাছে ধৃতকে পুলিশ হেপাজতে নেওয়ার আর্জি জানান। আদালতের বিচারক ধৃতের ৩ দিনের পুলিশ হেপাজত মঞ্জুর করেছেন। আদালত থেকে পুলিশ ফাঁড়িতে নিয়ে যাওয়ায় পথে বাবলু আনসারি দাবি করেন, তাঁর
দাদা ডাবলু আনসারি বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে মিথ্যা কেস সাজানো হয়েছে। এরপরই তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। বিজেপির একাধিক নেতাও একই দাবি করেছেন।