মমতার বাড়ি ঘেরাওয়ের ডাক অর্জুনের

ফাইল ছবি

কলকাতা: বাংলার শান্তি ফেরাতে সন্দেশখালি থেকে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের কালীঘাটের বাড়ি ঘেরাওয়ের ডাক দিলেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। পাশাপাশি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শাসনে সারা বাংলায় চরম অনাচার চলছে বলেও অভিযোগ তোলেন তিনি।

কয়েকদিন আগে আমপানের ক্ষতিপূরণ নিয়ে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে উত্তাল হয় উত্তর ২৪ পরগনার সন্দেশখালি। ঘটনায় মহিলা-শিশুসহ গুরুতর জখম হন ১২ জন। আক্রান্তরা এখনও বসিরহাট জেলা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

- Advertisement -

ঘটনার দু’দিন পর সোমবার সন্দেশখালি ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যান বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং ও বনগাঁ লোকসভা সাংসদ শান্তনু ঠাকুর সহ বিজেপির জেলা নেতৃত্ব। এলাকা পরিদর্শন করে বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং জানান, রাজ্যে পিসি ভাইপো প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানির যে ভাইগুলো রয়েছে, তাঁরাই অত্যাচার চালাচ্ছে। তাঁরাই বাংলার গর্ব। আর উনি নবান্নে বসে দেখছেন সারা বাংলা দেখছে খুবই শান্ত আছে।

আক্রান্ত বিজেপি কর্মীদের দেখিয়ে সাংসদ বলেন, এরা এখনও আতঙ্কে ভুগছে। ওরা বলছে, আপনারা চলে গেলে আমাদের বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেবে। এটা দেখে মুখ্যমন্ত্রীর লজ্জা হওয়া উচিত, যে উনি এখনও পশ্চিমবাংলার মুখ্যমন্ত্রী রয়েছেন। অতিদ্রুত ওনার পদত্যাগ করা উচিত। কারণ উনি প্রশাসন সামলাতে পারছেন না। তিনি বাংলার মানুষকে রক্ষা করতে পারছেন না।

সন্দেশখালিতে বিজেপি কর্মীদের হুমকির প্রেক্ষিতে এদিন তিনি বলেন, সব নেতারা তো আর গ্রামে থাকে না, শহরেও থাকে। আমরা ভারতীয় জনতা পার্টির যে কর্মীরা শহরে আছি তারাঁ প্রত্যেকের বাড়ি ঘেরাও করব। দরকার পড়লে বাংলা শান্তি ফেরাতে কালীঘাটে মমতার বাড়িও ঘেরা করব। আমাদের কর্মীদের পাশে আমাদের দাঁড়াতে হবে।

তাঁর দাবি, শুধু সন্দেশখালি তাই নয়। সারা বাংলায় আক্রান্ত হচ্ছে সাধারণ মানুষ। তিনি বলেন, এখানে কিছু দুষ্কৃতী পরিকল্পনা করে আক্রমণ করছে। আমাদের ১ জন কর্মীকে এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে গণতান্ত্রিক দেশে কোন ব্যক্তি কোন রাজনৈতিক দল করবে তা তার ব্যাপার। কিন্তু উনি জোর করে বিজেপি কর্মীদের টিএমসি করাবেন।

এদিন বসিরহাটের পুলিশ সুপারের কাছে স্মারকলিপিও জমা দেন বিজেপি নেতারা।