নয়াদিল্লি, ১৯ সেপ্টেম্বর : বুধবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন বীরভূমের দেউচা পাঁচামিতে কয়লা ব্লক উদ্বোধনের জন্য তিনি নরেন্দ্র মোদিকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। তার একদিন পরেই বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে কার্যত সতর্ক করে চিঠি লিখলেন বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত। চিঠিতে তিনি বলেছেন, দেউচা পাঁচামি কয়লা ব্লক এখনও পরিবেশগত ছাড়পত্র পায়নি, এমনকী ওই এলাকায় বসবাসকারী আদিবাসীদের জন্য রাজ্য সরকার পুনর্বাসন প্রক্রিয়াও শুরু করেনি। এই প্রেক্ষিতে পুজোর পর প্রধানমন্ত্রীকে দিয়ে কয়লা ব্লক উদ্বোধন করে রাজনৈতিক সুবিধা নিতে চান মমতা। সমস্ত প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পরেই প্রধানমন্ত্রীকে এই কয়লা ব্লক উদ্বোধনে আসার জন্য অনুরোধ করেছেন স্বপনবাবু।

চিঠিতে বিজেপি সাংসদ লিখেছেন, কয়লা ব্লক নিয়ে রাজ্য সরকার কোনো সামাজিক বা পরিবেশগত সমীক্ষা চালায়নি। সমগ্র বিষয়টিই এখন প্রাথমিক স্তরে রয়েছে। ওই এলাকায় বেশ কিছু আদিবাসী পরিবার বাস করেন। দেউচা পাঁচামি থেকে যাতে কয়লা উত্তোলন না করা হয়, তার জন্য ওই পরিবারগুলি এর আগে আন্দোলনও রয়েছে। তবুও রাজ্য সরকার পুনর্বাসন নিয়ে এখনও কোনো উদ্যোগ নেয়নি। স্বপন দাশগুপ্তর অভিযোগ, কয়লা ব্লককে সামনে রেখে জমি মাফিয়ারা ওই আদিবাসী পরিবারগুলির জমি কেড়ে নিতে তৎপর হয়েছে। এছাড়া বীরভূমের সাম্প্রতিক আইনশৃঙ্খলা নিয়েও প্রধানমন্ত্রীর কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন স্বপনবাবু। তাঁর দাবি, শুধুমাত্র জমি কেড়ে নেওয়াই নয়, এই কয়লা প্রকল্প চালু হলে চাকরি দেওয়ার নাম করে টাকা তোলার পরিকল্পনা করেছে এক শ্রেণীর মানুষ। চিঠিতে বিজেপি সাংসদ প্রধানমন্ত্রীকে বলেছেন, দুর্গাপুজোর পর এই কয়লা ব্লক উদ্বোধনে নরেন্দ্র মোদি উপস্থিত থাকলে তা মানুষকে ভুল বার্তা দেবে। মানুষের মনে এই বিশ্বাস জন্মাবে যে, সমস্ত ছাড়পত্র ও অনুমোদন নিয়ে এই প্রকল্প চালু করা হচ্ছে। তৃণমূল অবশ্য এ ব্যাপারে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া দেয়নি।