বিজেপির রাজ্য কমিটির সদস্যকে লক্ষ্য করে গুলি, চাঞ্চল্য এলাকায়

159

আসানসোল: বিজেপির রাজ্য কমিটির সদস্য কৃষ্ণেন্দু মুখোপাধ্যায়ের ওপর হামলার অভিযোগ। অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন তিনি। রবিবার রাতে ঘটনাটি ঘটে আসানসোলের বার্নপুর রোডে।

গতকাল রাতে কলকাতা থেকে ফিরে গাড়ি রাখছিলেন কৃষ্ণেন্দু মুখোপাধ্যায়। সেই সময় তিনজন অজ্ঞাত পরিচয় দুষ্কৃতী প্রথমে তাঁর গাড়ির দরজা খোলার চেষ্টা করে। গাড়ির দরজা খুলতে না পেরে, আচমকাই এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করে তারা। দূষ্কৃতিরা প্রত্যেকেই চাদরে নিজেদের ঢেকে রেখেছিল। গুলি চালানোর সময় কৃষ্ণেন্দুবাবু গাড়ির ভিতরেই ছিলেন। দুষ্কৃতীরা গুলি চালাতেই তিনি স্টিয়ারিং থেকে হর্ন বাজাতে থাকেন। তাঁর গাড়ির চালক চিৎকার করে আশপাশের লোকেদের ডাকার চেষ্টা করেন। সেই আওয়াজে দুষ্কৃতীরা এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে হিরাপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।

- Advertisement -

কৃষ্ণেন্দু মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘দলীয় কাজে কলকাতায় গিয়েছিলাম। পরের দিন আসানসোলে বেশ কিছু দলীয় বৈঠক ছিল। বাড়িতে ঢোকার সময় এই ঘটনাটি ঘটে। অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলাম।’ তাঁর সন্দেহ তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই এই ঘটনা ঘটিয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমাকে পৃথিবী থেকে সরিয়ে দিলে তাদেরই তো রাজনৈতিক লাভ। এই ঘটনার পরে নিরাপত্তার অভাব বোধ করছি। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি কোন জায়গায় পৌঁছেছে এই ঘটনাই তার প্রমাণ। রাজ্য নেতৃত্বকে গোটা বিষয়টি জানিয়েছি। পুলিশকেও সিসিটিভির ফুটেজ দিয়েছি।’ যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। তৃণমূল কংগ্রেসের পশ্চিম বর্ধমান জেলার অন্যতম মুখপাত্র অশোক রুদ্র বলেন, ‘অন্য কোনও দলের দিকে দোষ চাপানোর আগে, তিনি অতীতে কি কাজ করতেন তা ভেবে দেখুক। তার রেকর্ড কি ছিল, আশা করি পুলিশ তদন্ত করে দেখে সব বের করবে।’ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।