পালিয়েছেন ছেলে, মর্গেই পড়ে বিজেপি কর্মীর মায়ের দেহ

106

বর্ধমান: মসনদ দখলের লড়াইয়ে ভরাডুবি গেরুয়া শিবিরের। এরপরই যথারীতি অজ্ঞাতবাসে চলে গিয়েছেন বিজেপির নেতা কর্মীরা। পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর ব্লকের নবগ্রামে বিজেপি কর্মীর মায়ের মৃতদেহ তাই পরেই রইল পুলিশ মর্গে। দেখা নেই কোনও নেতা কর্মীর। বিজেপি কর্মী আশিস ক্ষেত্রপালের মা কাকলি ক্ষেত্রপালের মৃতদেহ নেওয়ার জন্যও আসেননি কোনও নেতা কর্মী। ভোট পরবর্তী হিংসায় এতটাই উত্তপ্ত এলাকা যে, প্রাণভয়ে ও গ্রেপ্তার হওয়ার ভয়ে গা ঢাকা দিতে বাধ্য হয়েছে অনেক বিজেপি নেতা কর্মী। একইভাবে সপরিবারে গা ঢাকা দিয়েছেন বিজেপি কর্মী আশিস ক্ষেত্রপাল নিজেও।

নির্বাচন পরবর্তী হিংসায় উত্তপ্ত ওঠে জামালপুরের নবগ্রামের ষষ্ঠীতলা এলাকা। তৃণমূল ও বিজেপির সংঘর্ষে মারা যান দুই তৃণমূল কর্মী। এই একই সংঘর্ষে মারা যান বিজেপি কর্মীর মা কাকলি ক্ষেত্রপাল। জামালপুর হাসপাতালে তাঁর মৃতদেহ পরে থাকলেও নিতে আসেনি কেউ। পরে পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায় বর্ধমান মেডিকেল কলেজে। কিন্তু কোথাও দেখা মেলেনি পরিবারের লোকজনের, দেখা মেলেনি বিজেপির কোনও নেতারও।

- Advertisement -

অন্যদিকে, তৃণমূলের দুই কর্মীর মৃতদেহের শেষকৃত্য পর্যন্ত উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। এই নিয়ে ক্ষোভ জমেছে বিজেপির নিচুতলার কর্মীদের মধ্যে। স্থানীয় সিপিএম নেতা সমর ঘোষ বলেন, ‘কাকলি ক্ষেত্রপাল সিপিএমের সাধারন সদস্য ছিলেন। তাই তার মৃতদেহ মর্গ থেকে এনে শেষকৃত্যের ব্যবস্থা করবেন তারা। তবে বিজেপির ব্লক ও জেলা স্তরের নেতাদের এই রকম আচরণে ক্ষোভ জমেছে বিজেপি কর্মীদের মধ্যে। তবে আপাতত দেহের শেষকৃত্যের জন্য মৃতার মেয়ে ও জামাইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করছে পুলিশ।’