দলবদলে বিজেপি থেকে তৃণমূলে একাধিক

235

গাজোল, ১১ জানুয়ারিঃ গাজোল ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের মাস্টার স্ট্রোক। বিজেপির জেলা সভাপতি গোবিন্দ্র চন্দ্র মণ্ডলের দুই ভাইপো এবং এক কাকাতো ভাই যোগ দিলেন তৃণমূল কংগ্রেসে। তাঁদের হাত ধরে বেশ কিছু বিজেপি কর্মী তৃণমূলে যোগদান করেছেন বলে দাবি করলেন তৃণমূলের জেলা এবং ব্লক নেতৃত্ব। বুধবার বিকেলে গাজোলের বৈরগাছি-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের রামনগর হাই মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে তৃণমূল অঞ্চল কমিটির উদ্যোগে এক কর্মী সভার আয়োজন করা হয়েছিল। ওই কর্মীসভায় বিজেপি থেকে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন মালদা জেলা বিজেপির সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মণ্ডলের ভাইপো কাশীনাথ মণ্ডল, ভুট্টু মণ্ডল এবং গোবিন্দ বাবুর কাকাতো ভাই সতেন্দ্রনাথ মণ্ডল।

তাঁদের প্রত্যেকেরই বাড়ি চিতকুল এলাকায়। এছাড়াও, তাঁদের হাত ধরে বেশকিছু বিজেপি কর্মী তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন। বিজেপি ছাড়াও অন্যান্য দল থেকে প্রায় শতাধিক মানুষ তৃণমূলে যোগদান করেন। এই যোগদান কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন মালদা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কো-অর্ডিনেটর সরকার, জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অরুণ তরফদার, ব্লক সভাপতি মানিক প্রসাদ, পঞ্চায়েত সমিতির সহসভাপতি জয়ন্ত ঘোষ, অঞ্চল সভাপতি মহসিন আলি, ব্লক কমিটির সদস্য প্রদীপ কুণ্ডু প্রমুখ। যোগদান কর্মসূচিতে বিজেপির জেলা সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মণ্ডলের ভাইপোর হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন জেলা কো-অর্ডিনেটর দুলাল সরকার।

- Advertisement -

দুলাল সরকার জানান, গাজোলের বৈরগাছি-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের রামনগর হাই মাদ্রাসাতে কর্মীসভার আয়োজন করা হয়েছিল। সেটি ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে ও অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেসের ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই কর্মীসভায় বিভিন্ন দলের শতাধিক কর্মী যোগদান করেন। গোবিন্দ চন্দ্র মণ্ডলের ভাইপো কাশীনাথ মণ্ডল, ভূট্টু মণ্ডল এবং তার কাকাতো ভাই সতেন্দ্রনাথ মণ্ডল বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করেন।

তৃণমূলের ব্লক সভাপতি মানিক প্রসাদ এবং অঞ্চল সভাপতি মহসিন আলি জানান, চিতকুল গ্রাম গাজোলে বিজেপি দুর্গ বলে পরিচিত। দীর্ঘদিন ধরে বিজেপি সংগঠনকে এলাকায় ধরে রেখেছিলেন তাঁরা। কিন্তু, যেদিনই দিপালী বিশ্বাস তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন, সেদিন থেকেই পুরোনো বিজেপি কর্মীরা দলের প্রতি বিরূপ হয়েছেন। বিভিন্ন এলাকা থেকে পুরোনো বিজেপি কর্মীরা তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন। খোদ পদ্মফুলের ঘরের লোক বীতশ্রদ্ধ হয়ে জোড়া ফুলে যোগ দিচ্ছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নমূলক কাজের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে আগামীদিনেও বিজেপি সহ অন্যান্য দল থেকে প্রচুর মানুষ তৃণমূলে যোগ দেবেন বলে তিনি আশাবাদী।