বিজেপিতে বড় ভাঙন, তৃণমূলে যোগ দিতে চলেছেন উত্তরের এই তাবড় নেতা

371

আলিপুরদুয়ার: বিজেপিতে ফের বড়সড়ো ভাঙন। আলিপুরদুয়ারের বিজেপির জেলা সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা সোমবার তৃণমূলে যোগ দিতে চলেছেন। তাঁর সঙ্গে জেলার আরও ছয় জন নেতা তৃণমূলে যোগ দেবেন বলে রবিবার জানিয়েছেন গঙ্গাপ্রসাদ। কলকাতায় ওই দলবদল কর্মসূচি হবে। বিজেপির এই ভাঙনে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে জেলার রাজনৈতিক মহলে।

বিধানসভা নির্বাচনে জেলার পাঁচটি আসনে জয়লাভ করেন বিজেপির প্রার্থীরা। বিজেপির জেলা সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা নিজেও আলিপুরদুয়ার বিধানসভা আসনে এবারের নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার দাবিদার ছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত দল তাঁকে প্রার্থী করেনি। বিজেপি দলবিরোধী কথা বলায় গঙ্গাপ্রসাদকে বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী না করে তারই ঘনিষ্ঠ সুমন কাঞ্জিলালকে আলিপুরদুয়ার আসনে প্রার্থী করা হয়। দল রাজ্যে ক্ষমতায় না আসায় খানিকটা হতাশায় ভুগছিলেন গঙ্গাপ্রসাদ। তবে তিনি দল ত্যাগ করে তৃণমূল শিবিরে চলে যাবেন এটা কোনওভাবেই মেনে নিতে পারছেন না দলের নেতা-কর্মীরা। গঙ্গাপ্রসাদ তৃণমূলে যোগদানের কথা এদিন স্বীকার করলেও কেন বিজেপি ছাড়ছেন, সে নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি।

- Advertisement -

গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা জানান, এনিয়ে যা বলার তিনি পরে বলবেন। বিজেপির বিধায়ক সুমন কাঞ্জিলাল জানান, খবরটা জানার পর খুবই আহত। কেন উনি দল ছাড়ছেন, তা জানা নেই। তবে জেলা কমিটি খুব শীঘ্রই এনিয়ে বৈঠকে বসবে। বিজেপির জাতীয় পরিষদের সদস্য গুণধর দাস জানান, যাঁরা কারবার করতে দলে এসেছেন, তাঁরা পালিয়ে যাবেন। বিজেপি দলে আয় নেই, তাই অন্য দলে সুবিধাভোগীরা যাবে, এটাই স্বাভাবিক। কয়েকজন নেতার জন্য বিজেপি দলের কোনও ক্ষতি হবে না। আলিপুরদুয়ারে বিজেপির জয় সব সময় হবেই। তৃণমূলের আলিপুরদুয়ার জেলার মুখপাত্র সৌরভ চক্রবর্তী জানান, বিজেপি দলটাই এরাজ্য থেকে উঠে যাবে। আলিপুরদুয়ার জেলাও তার ব্যতিক্রম নয়। যাঁরা বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করছেন তাঁদের সবাইকে স্বাগত।