লাভপুর, ৪ জুলাই : ফের বিস্ফোরণ বীরভূমে। কিছুদিন আগে মল্লারপুরের ক্লাবে বিস্ফোরণের কিনারা এখনও হয়নি। এবার লাভপুরের দাঁড়কায় বিস্ফোরণে উড়ে প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের ঘর। তবে ওই ঘরগুলি ব্যবহার করা হত না। বিস্ফোরণের তীব্রতায় ভেঙেছে পাশের একটি ঘরের টিনের চাল। তবে ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, ওই ঘরে প্রচুর বোমা মজুত করা ছিল। সেগুলিতেই বিস্ফোরণ হয়েছে।
স্থানীয়রা জানিয়েছেন, বুধবার রাত আড়াইটে নাগাদ হঠাত্ বিস্ফোরণের শব্দে কেঁপে ওঠে গোটা এলাকা। গিয়ে দেখেন প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের দুটি ঘর ভেঙে পড়েছে। ওই ঘরদুটি কর্মী আবাসন হিসাবে আগে ব্যবহার করা হত। এথন পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকত। ওই প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের একেবারে কাছেই পুলিশ ক্যাম্প রয়েছে। তাই পুলিশের নাকের ডগায় কীভাবে এই ঘটনা ঘটল, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। ইতিমধ্যে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে ফরেনসিক দল। বোমা থেকেই বিস্ফোরণ হয়েছে, না কী অন্য কোনো কারণ রয়েছে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দিনের বেলা ওই বিস্ফোরণ হলে, প্রাণহানি হতে পারত বলে আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। এর আগে ২০১৭ সালে এই দাঁড়কা গ্রামেই বোমা বিস্ফোরণে নয় জনের মৃত্যু হয়েছিল। এদিনের ঘটনার পর ফের শুরু হয়েছে চাপানউতোর। বিজেপির দাবি, তৃণমূল কংগ্রেসের দুষ্কৃতীরাই ওই পরিত্যক্ত ঘরগুলিতে বোমা মজুত করেছিল। অন্যদিকে, তৃণমূলের দাবি বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে৷