করোনা নিয়ে মাল ব্লক প্রশাসনের বৈঠক

429

মালবাজার, ১৫ জুনঃ করোনা ভাইরাস মোকাবিলাতে যাবতীয় উদ্যোগ নিচ্ছে মাল ব্লক প্রশাসন। সার্বিকভাবে পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করে ব্লকে করোনা মোকাবিলা নিয়ে বৈঠক হল। বৈঠকে জনসচেতনতা বাড়ানোর ক্ষেত্রে বাড়তি জোর দেওয়া হয়। সোমবার দুপুরে মাল পঞ্চায়েত সমিতির সভাকক্ষে মাল ব্লক প্রশাসনের বৈঠকটি হয়েছে। বৈঠকে মালের বিডিও বিমান চন্দ্র দাস, মালের বিধায়ক বুলু চিক বড়াইক, বিএমওএইচ ডাঃ প্রিয়াঙ্কু জানা, মাল থানার ওসি শুভাশিস চক্রবর্তী, মাল পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কৌশল্যা রায়, সহ সভাপতি মহুয়া গোপ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। মাল ব্লক প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্লকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে।

দেশের কেবলমাত্র ৫টি সুনির্দিষ্ট রাজ্য থেকে ফেরা বাসিন্দাদের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারান্টিনে রাখার বিষয়টি জানানো হয়। অন্য রাজ্য থেকে ফেরা উপসর্গহীন বাসিন্দারা হোম কোয়ারান্টিনে থাকবেন বলে জানানো হয়। বর্তমানে মাল ব্লকে সরকারি উদ্যোগে পরিচালিত চারটি কোয়ারেন্টাইন কেন্দ্র আছে। এর মধ্যে গঙ্গা দেবী কিষাণ মান্ডি, চেংমারী ডাব্লুএম ই বিদ্যালয়, ওদলাবাড়ি জেলা পরিষদ কমিউনিটি হলে ভিন রাজ্য থেকে ফিরে আসা বাসিন্দারা আছেন। রাজাডাঙ্গা পিএম উচ্চ বিদ্যালয়ে এখন কেউ নেই। ইতিমধ্যে মাল পরিমল মিত্র স্মৃতি মহাবিদ্যালয় কোয়ারান্টিনে কেন্দ্রটিও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া স্থানীয় এলাকা ভিত্তিতে অনেক অসরকারি কোয়ারেন্টাইন কেন্দ্র আছে। সেগুলি স্থানীয়স্তরে শেলটার হোম হিসেবেই ব্যবহৃত হচ্ছে।

- Advertisement -

মাল ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ প্রিয়াঙ্কু জানা বলেন, আমরা আজকে স্বাস্থ্যকর্মীদের পাঠিয়ে সমস্ত কোয়ারান্টিন কেন্দ্রে থাকা বাসিন্দাদের পর্যায়ক্রমে স্বাস্থ্য পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছি। মাল ব্লক প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, এখনও পর্যন্ত মাল ব্লকে মোট ৪২ জনের করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এর মধ্যে জলপাইগুড়ি জেলা কোভিড হাসপাতালে চিকিৎসার পর ১৪ জন পুরোপুরি সুস্থ হয়ে ফিরে এসেছেন। জেলা প্রশাসনের নির্দেশ মোতাবেক কনটেইনমেন্ট এবং বাফার জোন গঠন করা হয়েছে। কনটেন্টমেন্ট গুলির জন্য ইন্সিডেন্ট কমান্ডারদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সার্বিক বিষয় নিয়েই এদিন আলোচনা হয়েছে। এদিকে মাল পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এখনও পর্যন্ত লকডাউন শুরুর পর থেকে মাল শহরে ফিরে আসা ৪৮০ জনকে হোম কোয়ারান্টিনে রাখা হয়েছিল। এদের মধ্যে ৩১০ জনের কোয়ারান্টিনের মেয়াদকাল অতিক্রান্ত হয়েছে। এখনও ১৭০ জন হোম কোয়ারান্টিনে আছেন। শহরের ১৯৩ জনের লালারস পরীক্ষা করা হয়েছে।