কুল পাড়া নিয়ে দুই প্রতিবেশী বিবাদে রক্তাক্ত ৫

105

হরিশ্চন্দ্রপুর: কুল নিয়ে দুই প্রতিবেশীর মধ্যে বিবাদ রক্তাক্ত এক প্রসূতি মা সহ পাঁচজন। ঘটনাটি ঘটেছে, শুক্রবার সন্ধ্যা নাগাদ মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর-১ নং ব্লকের মহেন্দ্রপুর জিপির ভবানীপুর গ্রামে। আহত হয়েছেন খতেজা বিবি (৪৫) ও তাঁর বিবাহিত বড় মেয়ে খায়রুন নেশা (৩০) ও ছেলে দানেমুল ইসলাম (২২)। অপরদিকে, রক্তাক্ত হয়েছেন শেখ কালচু ও তাঁর স্ত্রী নীলমনি খাতুন। রক্তাক্ত অবস্থায় আহত পাঁচ জনকে হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। বর্তমানে সেখানেই তাদের চিকিৎসা চলছে। উভয়পক্ষ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে বলে খবরষ

অভিযোগকারী খতেজা বিবি জানান, শুক্রবার সন্ধ্যা নাগাদ তাঁর বিবাহিত বড় মেয়ে খায়রুন নেশা নিজের কুলগাছ থেকে কুল পাড়ছিল। কিছু কুল ছিটকে প্রতিবেশী শেখ আসিফুলের পতিত জমিতে পড়ে যায়। সেই কুল মা ও মেয়ে দুইজনে মিলে কুড়োতে গেলে আসিফুলের পরিবার লাঠিসোটা ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাদের উপরে হামলা চালায় বলে অভিযোগ। অপরদিকে, অভিযুক্ত আসিফুলের ছেলে শেখ কালচু মাঠ থেকে এসে বাঁশ নিয়ে তাদের উপরে চড়াও হলে বাঁশের আঘাতে রক্তাক্ত অবস্থায় হয়ে পড়েন মা, মেয়ে ও ছেলে। প্রতিবেশীরা তাদের রক্তাক্ত অবস্থায় হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করান।

- Advertisement -

অভিযুক্ত শেখ কালচু জানান, কুলের গাছটি ওদের বাড়িতে থাকলেও কিছু ডাল তাদের জমির উপরে ছায়া করে রয়েছে। বেড়া ভেঙে ও ফসল নষ্ট করে এপারে তাঁরা কুল কুড়োতে আসে। বারবার বারণ করা সত্ত্বেও তাঁরা কোনো কর্ণপাত করে না। এদিন তাদের বেড়া ভেঙে কুল কুড়োতে আসতে বারণ করলে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করে বলে অভিযোগ। এতে দুই পক্ষের মধ্যে হাতিহাতি হয়। ওদের বাঁশের আঘাতে তাঁর মাথা ফেটে যায় এবং তাঁর প্রসূতি স্ত্রীর হাত কেটে রক্তাক্ত হয়ে যায়। এদিকে, পুলিশ লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে বিষয়টি তদন্ত শুরু করেছে।