বন্ধ ঘর থেকে পচাগলা মৃতদেহ উদ্ধার বীরপাড়ায়

273

বীরপাড়া: বন্ধ ঘরের বেড়া কেটে মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল আলিপুরদুয়ার জেলার বীরপাড়ায়। নিজের ঘরেই মৃত অবস্থায় পড়েছিলেন বীরপাড়ার কলেজপাড়ার প্রদীপ বড়ুয়া নামে বছর পঁয়তাল্লিশের এক ব্যক্তি। অথচ তাঁর ঘরের দরজা-জানালা যে টানা প্রায় ৭২ ঘণ্টা ধরে বন্ধ সেদিকে নজর করেননি কেউই। সোমবার সন্ধ্যে নাগাদ ঘর থেকে তীব্র দুর্গন্ধ ছড়াতে শুরু করলে পুলিশে খবর দেন স্থানীয় বাসিন্দারা। গতরাতে বীরপাড়া থানার পুলিশ বন্ধ ঘরের টিনের বেড়া কেটে দেহটি উদ্ধার করে। পচাগলা দেহটি মঙ্গলবার ময়নাতদন্তের জন্য আলিপুরদুয়ারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান বীরপাড়া থানার ওসি প্রেমকুমার থামি। তিনি জানান, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলেই ওই ব্যক্তির মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

মৃতের আত্মীয় কাঞ্চন বড়ুয়া জানান, প্রায় তিনদিন ধরে কাজে যাচ্ছিলেন না পেশায় গ্যারেজ কর্মী প্রদীপ। সোমবার সন্ধ্যায় তাঁর ঘর থেকে দুর্গন্ধ বেরোনোর খবর পেয়ে ছুটে যান তাঁরা। তিনি জানান, মদ্যপানে আসক্ত ছিলেন প্রদীপ। এর জেরে স্ত্রী-পুত্রও তাঁর সঙ্গে থাকতেন না। একাই থাকতেন প্রদীপ। মৃতের প্রতিবেশীরাও জানান, তাঁদের সঙ্গে প্রদীপের সামাজিক সম্পর্ক একপ্রকার ছিল না বললেই চলে। প্রদীপ কোনও প্রকার ঝামেলা না করলেও সব সময় নেশায় আচ্ছন্ন হয়ে থাকায় প্রতিবেশীরাও তাঁকে এড়িয়ে চলতেন। ফলে তিনদিন ধরে বাড়ি থেকে না বেরোলেও বিষয়টি নিয়ে কেউ গুরুত্ব দেননি। অবশেষে তাঁর দেহটি পচে দুর্গন্ধ ছড়াতে শুরু করলে টনক নড়ে প্রতিবেশীদের।

- Advertisement -