মাঠের বাইরের বিতর্কের বিরুদ্ধে লড়াই ব্রাজিলের

রিও ডি জেনেইরো : সাধারণ ফুটবলপ্রেমী থেকে শুরু করে বিশেষজ্ঞ- সকলেই একবাক্যে মেনে নিয়েছে, এবারের কোপায় সেরা দল ব্রাজিল।

কিন্তু তাতে টিটের দলের লড়াইটা সহজ হয়ে যায়নি। বরং খেলা বহির্ভূত বিতর্কের বিরুদ্ধেও লড়তে হচ্ছে তাঁদের। কলম্বিয়া ম্যাচের রেফারিং, মাঠের ঘাস, কোচের জরিমানা- একের পর এর ধাক্কা সেলেকাও শিবিরে। সেসব ভুলে রবিবার ভারতীয় সময় মাঝরাতে গোইয়ানা শহরের এস্টাডিও অলিম্পিকো পেড্রো লুডোভিকোয় ইকুয়েডর ম্যাচে মন দেওয়াটাই ব্রাজিলের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ।

- Advertisement -

কলম্বিয়া ম্যাচে ব্রাজিলের প্রথম গোলের ঠিক আগে রেফারির গায়ে বল লাগলেও তিনি খেলা থামাননি। ফুটবল পণ্ডিতরা তাতে অনিয়ম না দেখলেও সরব হয়েছে শাকিরার দেশের ফুটবলাররা। জুভেন্টাসের তারকা হুয়ান কুয়াদ্রাদো ম্যাচের পর সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন। এমনকি রেফারি নেস্টর পিটানাকে কোপার বাকি ম্যাচ থেকে সাসপেন্ড করার জন্য কলম্বিয়ার তরফে চিঠি দেওয়া হয়েছে আয়োজক কনমেবলকে।

বিতর্ক এখানেই শেষ নয়। রিও শহরের এস্টাডিও নিল্টন স্যান্টোসের মাঠের ঘাস নিয়ে ক্ষুব্ধ ব্রাজিল কোচ টিটে। ম্যাচ শেষে সাংবাদিক সম্মেলেন তিনি বলেন, মাঠটাকে ভযংকর বলব না। তবে ফুটবল খেলার জন্য খুবই জঘন্য। এমন মাঠে সুন্দর ফুটবল খেলা সম্ভব নয়। আমার মনে হয়, অল্প সময়ে মধ্যে কোপা আয়োজন করতে গিয়ে মাঠের দিকে নজর দেওয়া যায়নি। দুই দলেই বহু ফুটবলার আছে যাঁরা ইউরোপের লিগে ভালো মাঠে সারাবছর খেলে। তাঁদের এমন মাঠে খেলতে বাধ্য করা ঠিক নয়।

এতেই বেজায় চটেছে আয়োজক কনমেবল। গত কয়েক সপ্তাহে ব্রাজিল দল বারবার কনমেবলের সমালোচনা করেছে। তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্তে ব্রাজিলে কোপা আয়োজন করার বিরোধিতা করে একসময় না খেলার হুমকিও দিয়েছিলেন নেইমার-কাসেমিরোরা। তাতে সম্পূর্ণ সায় ছিল টিটের। এরপর মাঠ নিয়ে সমালোচনার জেরে শাস্তির খাঁড়া টিটের উপর। আয়োজকদের সমালোচনা করার অজুহাতে তাঁকে ৫ হাজার ডলার জরিমনা করা হয়েছে। তবে ব্রাজিলের ক্ষোভ প্রমশনেও উদ্যোগী আয়োজকরা। সূত্রের খবর, কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচগুলি রিও থেকে কুইয়াবার এরিনা পান্টানেলে সরানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।