কোভ্যাকসিনে আগ্রহী ব্রাজিল

254

নয়াদিল্লি: ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভ্যাকসিন নিয়ে দেশে বিতর্ক থামার লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল না হওয়া টিকাকে ডিসিজিআই কীভাবে অনুমোদন দিল সেই প্রশ্ন তুলেছে কংগ্রেস। এই টানাপোড়েনের মধ্যে কোভ্যাকসিন নিয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ব্রাজিলের এক বেসরকারি সংগঠন। ব্রাজিলিয়ান অ্যাসোসিয়েশন অফ ভ্যাকসিন ক্লিনিকস নামে সংগঠনটি ৫০ লক্ষ ডোজ কিনতে ভারত বায়োটেকের সঙ্গে মউ স্বাক্ষর করেছে। এই প্রথম কোনও বিদেশি প্রতিষ্ঠান ভারতে তৈরি ভ্যাকসিন কিনতে উদ্যোগী হল। বর্তমানে অক্সফোর্ডের টিকার ট্রায়াল চলছে ব্রাজিলে। কবে সেখানে টিকাকরণ শুরু হবে সেব্যাপারে ধোঁয়াশা রয়েছে।

প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো একাধিকবার টিকাকরণের বিরোধিতা করেছেন। এদিকে দেশে সংক্রামিতের সংখ্যা বাড়ছে। ওয়ার্ল্ডোমিটারের হিসাব অনুযায়ী, সোমবার পর্যন্ত ব্রাজিলে ৭৭,৩৩,৭৪৬ জনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। মৃতের সংখ্যা ১,৯৬,০১৮। সেখানে টিকাকরণের উদ্যোগ মূলত বেসরকারি স্তরে সীমাবদ্ধ। সেদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, অক্সফোর্ডের ১০ কোটি ডোজ কেনার ব্যাপারে আলোচনা চলছে। তবে কবে নাগাদ সেই ডোজ পাওয়া যাবে সেব্যাপারে মন্ত্রকের তরফে কিছু জানানো হয়নি। ভ্যাকসিন ক্লিনিকস টিকা কিনতে আগ্রহী হলেও তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শেষ হওয়ার পরেই তা রপ্তানি করা হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

- Advertisement -

পর্যবেক্ষকদের মতে, আন্তর্জাতিক স্তরে কোভিড টিকার চাহিদা ক্রমশ বাড়ছে। ভারত বায়োটেকের টিকার দাম কোভিশিল্ডের চেয়ে অনেক কম। সেক্ষেত্রে আগামী দিনে আন্তর্জাতিক স্তরে ভারতে তৈরি এই টিকার চাহিদা আরও বাড়বে। ইতিমধ্যে টিকা রপ্তানির জন্য বিভিন্ন দেশ ও সংস্থার মধ্যে চুক্তি হয়েছে। গত সপ্তাহে হায়দরাবাদের রাজীব গান্ধি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও দুবাইয়ের বিমানবন্দরগুলির মধ্যে কোভিড টিকার ডোজ পরিবহণ নিয়ে এক চুক্তি হয়েছে। ওই চুক্তি অনুযায়ী, দু-পক্ষ একে অন্যের কোভিড ডোজ পরিবহণকারী উড়ানগুলিকে অগ্রাধিকার দেবে।