Breaking News: দেশজুড়ে ১৭ মে পর্যন্ত বাড়ছে লকডাউন 3.0

670

নয়াদিল্লি: আভাস ছিলই৷ এবার তা বাস্তবে রূপান্তর হতে চলেছে৷ দেশজুড়েই লকডাউনের সময়সীমা বাড়ছে৷ দু সপ্তাহ বাড়ানো হল লকডাউন৷ ১৭ মে পর্যন্ত বাড়ছে লকডাউন৷ ফলে ৩ মে, সোমবারের পরেও মানুষের দুর্দশা কমছে না৷ তবে, লকডাউন ৩.০ কিছু নয়া নিয়মরীতির উপর ভিত্তি করেই হচ্ছে৷

নয়াদিল্লি সূত্রের খবর, লকডাউন ৩.০ শুধু মাত্র রেড জোন এলাকায় পুরোপুরি হবে৷ বাকি অরেঞ্জ এবং গ্রিন জোনে কিছু কিছু ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হতে চলেছে৷ তবে, গ্রিন জোনে প্রায় সমস্ত কিছুই স্বাভাবিক হতে পারে বলেই মনে করা হচ্ছে৷ তবে, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই খবর জানানো হয়েছে৷ আগামিকাল শনিবার সকাল ১০টা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জাতির উদ্দেশ্যে ‘স্পেশাল মেসেজ’ দেবেন বলে জানা গিয়েছে৷ সম্ভবত সেই মেসেজেই প্রধানমন্ত্রী লকডাউন বাড়ানোর কথা ঘোষণা করবেন৷

- Advertisement -

এক নজরে লকডাউন ৩.০
১. স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে ৪ মে থেকে লকডাউন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
২. পাশাপাশি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে কিছু নতুন নির্দেশিকাও দেওয়া হয়েছে।
৩. যেসব জেলায় কোনো করোনা আক্রান্ত নেই বা শেষ ২১ দিনে কোনও সংক্রমণ ধরা পড়েনি, সেসব জেলা গ্রিন জোনের মধ্যে থাকবে।
৪. মোট আক্রান্তের সংখ্যা, টেস্টের পরিমান বৃদ্ধি, আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুন হওয়ার সময়ের ওপর নির্ভর করে রেড জোন নির্ধারিত হবে।
৫. রেড ও গ্রিন জোনের বাইরে যেসব এলাকা থাকবে, সেগুলিকে অরেঞ্জ জোন হিসেবে ধরা হবে।
৬. দেশের যেসব এলাকা করোনা সংক্রমণের ভিত্তিতে রেড ও অরেঞ্জ জোনের মাঝে থাকবে, সেটাকে কন্টেইনমেন্ট জোন হিসেবে ধরা হবে। সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসনের দ্বারা কন্টেইনমেন্ট জোন চিহ্নিত করা হবে।
৭. নতুন নির্দেশিকা অনুযায়ী জোনের ভিত্তিতে বেশকিছু পরিষেবা বন্ধ থাকবে। ট্রেন, মেট্রো, বিমান পরিষেবা বন্ধ থাকবে। স্কুল, কলেজ সহ অন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শপিং মলও বন্ধ থাকবে।
৮. সন্ধ্যা ৭ টা থেকে সকাল ৭ টা পর্যন্ত বিনা প্রয়োজনে বাইরে বেরোনো নিষিদ্ধ করা হয়েছে।
৯. কন্টেইনমেন্ট জোনের বাইরে রেড জোনে অটো, রিকশা নিষিদ্ধ। খোলা যাবে না স্পা, সেলুন। পাশাপাশি আন্তঃ জেলা বাস চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।
১০. বিশেষ অনুমতি স্বাপেক্ষে চার চাকার গাড়িতে ড্রাইভার সহ দুজন যাতায়াত করতে পারবে রেড জোনে।
১১. এছাড়া রেড জোনে একশো দিনের প্রকল্প, ফুড প্রসেসিংয়ের কাজ চলবে। প্রিন্ট মিডিয়া ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার কাজে অনুমতি দেওয়া হবে রেড জোনে।