বিধি ভাঙায়, ভালুকা থানায় কিশোরকে মারধরের অভিযোগ

112

হরিশ্চন্দ্রপুর: করোনা রুখতে জারি বিধি নিষেধ অমান্য করায় এবার হরিশ্চন্দ্রপুরের ভালুকা এলাকার এক কিশোর কে মারাধর করার অভিযোগ উঠল ভালুকা ফাঁড়ির ইনচার্জের বিরুদ্ধে। এমনকী সেই কিশোর এবং তার বাড়ির লোকের অভিযোগ, কারণ ছাড়াই পুলিশ ধরে নিয়ে গিয়ে লকআপে মারধর করেছে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ভালুকা ফাঁড়ির ইনচার্জ।

বিধি ভাঙায়, ভালুকা থানায় কিশোরকে মারধরের অভিযোগ| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India
ঘটনাটি ঘটেছে হরিশচন্দ্রপুর থানা এলাকার ভালুকা ফাঁড়ির অন্তর্গত গোবরাঘাট এলাকায়। প্রহৃত ওই কিশোরের নাম শেখ বেলাল(১৫)।তার পিতা শেখ জামাল পেশায় মাঝি। বাড়ি হরিশ্চন্দ্রপুর থানার রশিদপুর গ্রামে। ওই কিশোরের পরিবার সূত্রের খবর, সোমবার তার বাবা বাড়িতে খেতে যাওয়ায় ঘাটে বাবার নৌকা পাহাড়া দিচ্ছিল ছেলে। সেসময় ভালুকা পুলিশ ফাঁড়ির আধিকারিকরা শেখ বেলাল কে থানায় ধরে নিয়ে যায়। সেখানেই ওই কিশোরটিকে মারধর করার অভিযোগ ওঠে ওই ফাঁড়ির ইনচার্জএর বিরুদ্ধে। বাড়িতে নিয়ে আসার পরে অসুস্থ হয়ে পড়ে ওই কিশোর। তাকে নিয়ে আসা হয় হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতালে। রাতে ওই কিশোরের পরিবারের তরফে সমগ্র ঘটনাটি জানানো হয় তৃণমূলের জেলা সাধারণ সম্পাদক জম্মু রহমানকে। জম্মু রহমান জানিয়েছেন, ওই কিশোরের হাতে ফ্র্যাকচার হয়েছে। এই ঘটনা খুব দুঃখজনক।

- Advertisement -

বিধি ভাঙায়, ভালুকা থানায় কিশোরকে মারধরের অভিযোগ| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

আক্রান্ত শেখ বেলাল বলেন, ‘আমাকে থানায় তুলে নিয়ে বেধড়ক মারধর করেছেন ভালুকা ফাঁড়ির ইনচার্জ।সারা শরীর ফুলে গেছে।হাত ভেঙে গেছে।’ কিশোরের বাবা শেখ জামাল বলেন, ‘পুলিশ আমার ছেলেকে তুলে নিয়ে গিয়ে মারধর করেছে, এই ঘটনার সুবিচার চাইছি।’ যদিও তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ভালুকা ফাঁড়ি ইনচার্জ সৌমজিৎ মল্লিক। তিনি জানান,লকডাউন চলছে। তাই পুলিশের নজরদারি চলছে। লকডাউন অমান্য করলে পুলিশ ব্যবস্থা নিচ্ছে। কাউকে ডিটেনশন করলে তারপর তাকে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে। লকআপে আনার প্রশ্ন নেই। আর এইভাবে কাউকে মারধর করা হয়নি। সমগ্র ঘটনাটি খোঁজ নিতে হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। চাঁচল মহকুমা পুলিশ আধিকারিক শুভেন্দু মন্ডল বলেন, ‘ঘটনার কথা শুনেছি বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’