প্রতিশ্রুতি মিললেও পাকা সেতু তৈরি হয়নি, ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী

408

উৎপল সেন, হেলাপাকড়ি: বাম আমলে বালি-পাথর পড়েছে। বর্তমান সরকারও প্রতিশ্রুতি দিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু পাকা সেতু তৈরি হচ্ছে না। যে কারণে ক্ষুব্ধ ময়নাগুড়ি ব্লকের পদমতি-২ অঞ্চলের তিলক কলোনি গ্রামের বাসিন্দারা। বিধানসভা ভোটের আগে পাকা সেতুর দাবি তুলেছেন তাঁরা।

সানিয়াজান নদীর পাড় ঘেঁষেই রয়েছে এলাকায় ঢোকার একমাত্র রাস্তা। মেঠো সেই রাস্তা দিয়েই হাট, বাজার, হাসপাতাল সহ সমস্ত জায়গায় যাতায়াত করেন এলাকার বাসিন্দারা। এলাকার ছাত্র-ছাত্রীদেরও সেই রাস্তা দিয়েই স্কুল-কলেজে যাতায়াত করতে হয়। কিন্তু স্থানীয় কালিস্থান বাঁধের জল সানিয়াজান নদীতে পড়ায় এলাকায় তৈরি হওয়া একটি নালা যাতায়াতের রাস্তাটিকে বিভক্ত করে রেখেছে। এলাকাবাসীর যাতায়াতের জন্য সেখানে বাঁশের সাঁকো বানানো হয়েছে। কিন্তু সেই সাঁকো দুর্বল। তাই সেখানে পাকা সেতু তৈরির জন্য দীর্ঘদিনের দাবি স্থানীয়দের।

- Advertisement -

এলাকার বাসিন্দা উদয় রায় জানান, তিলক কলোনি, তাঁতিপাড়া, কেরপারডাঙ্গা, কাঁশি কলোনি সহ বিভিন্ন গ্রামের মানুষের যাতায়াতের একমাত্র রাস্তা এটি। শুধু তাই নয়, মেখলিগঞ্জ ব্লকের ভোটবাড়ি ও নিজতরফ অঞ্চলেরও প্রচুর মানুষ এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করেন। বাঁশের সাঁকো দিয়ে পারাপার করতে হয়। বেশি সমস্যা হয় বর্ষার সময়। তাছাড়া পাকাসেতু না থাকায় এলাকায় বড় যানবাহন এমনকি অ্যাম্বুলেন্সও ঢুকতে পারে না। ফলে রোগীকে হাসপাতাল বা ডাক্তারের কাছে নিয়ে যেতে দারুণ সমস্যায় পড়তে হয়। কৃষি প্রধান এই এলাকার কৃষকদের পণ্য হাটে নিয়ে যেতেও সমস্যা হয়।

এলাকার বাসিন্দা অশ্বিনীকুমার রায় বলেন, ‘বামফ্রন্ট সরকারের আমলেই এখানে পাকা সেতু তৈরির পরিকল্পনা হয়েছিল। সেতু তৈরির জন্য বালি-পাথরও পড়েছিল। কিন্তু অজ্ঞাত কোনও কারণে তখন কাজ শুরু হয়নি। পরে সরকার পরিবর্তন হয়েছে। বর্তমান সরকারের প্রতিনিধিরাও এসে পাকা সেতু তৈরির আশ্বাস দিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু কাজের বেলায় কিছুই হচ্ছে না। এইনিয়ে উত্তরবঙ্গ সংবাদেও খবর প্রকাশিত হয়েছে। খবর প্রকাশিত হওয়ার পরেই পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি শিবম রায়বসুনিয়া এসে পাকা সেতু করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে গিয়েছেন। কিন্তু আজ অবধি সেতু তৈরির কোনও লক্ষণই দেখা গেল না।’ এলাকাবাসীর কথায়, প্রত্যেক ভোটের আগেই বিভিন্ন নেতারা এসে পাকা সেতু করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। কিন্তু ভোটের পরই তা ভুলে যান। তাই এবার বিধানসভা ভোটের আগে পাকা সেতুর দাবি তুলেছেন তাঁরা।

এই বিষয়ে পদমতি-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান লিপিকা রায় বলেন, ‘ওই এলাকার মানুষের পাকা সেতুর দাবি রয়েছে। এই বিষয়ে গ্রাম পঞ্চায়েতের তরফে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি এলাকা পরিদর্শন করে গিয়েছেন। সেতু তৈরির বিষয়ে তিনি আশ্বাস দিয়েছেন। এইনিয়ে পরিকল্পনাও চলছে।’