ভেসে গেল সাঁকো, বিপাকে ভাঁটাখোলানের বাসিন্দারা

125

রাঙ্গালিবাজনা: প্রবল বৃষ্টিতে ঝোরার সাঁকো ভেসে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন আলিপুরদুয়ার জেলার রাঙ্গালিবাজনা গ্রামপঞ্চায়েতের ভাঁটাখোলানের বাসিন্দারা। তাঁরা জানান, বৃহস্পতিবার রাতে নাককাটি ঝোরার সাঁকোটি ভেসে যায়। এরপর থেকে ভাঁটাখোলানের দক্ষিনাংশটি বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। বর্তমানে ঝুঁকি নিয়ে খরস্রোতা ঝোরার জল ভেঙে পারাপার করতে হচ্ছে এলাকার বাসিন্দাদের। যদিও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা এখনও অবধি কোনও খোঁজ খবর নেননি বলেই অভিযোগ এলাকাবাসীদের।

ভাঁটাখোলানের দক্ষিনাংশে যাওয়ার জন্য একসময় পাকা কালভার্ট ছিল। ২০১৭ সালে সেটি ভেঙে পড়ে। এরপর থেকে বাঁশের সাঁকোই  ছিল একমাত্র ভরসা। কিন্তু প্রতি বর্ষায় সাঁকো ভেসে যায়। ভুক্তভোগী সায়রা বানু, নূরজাহান খাতুন সহ অনেকেরই অভিযোগ, পাকা কালভার্ট ভেঙে পড়ার ৫ বছর পরও সেটি পুনর্নির্মাণের উদ্যোগ নেননি জনপ্রতিনিধিরা। স্থানীয়রা  জানান, কয়েক বছর ধরে খরস্রোতা ওই ঝোরাটি গতিপথ পালটে কৃষিজমি খুঁড়ে নয়া গতিপথ তৈরি করে নিচ্ছে। কয়েক বছর আগে যে জমিগুলিতে চাষবাস হত সেই জমিতে এখন বইছে স্রোতের ধারা। ঝোরার  স্রোতে ভেঙে পড়েছে একাধিক  কালভার্ট। ঝোরার গর্ভে হারিয়ে যাওয়ার মুখে স্থানীয় শিশুশিক্ষাকেন্দ্রও। এবিষয়ে মাদারিহাট বীরপাড়া পঞ্চায়েত সমিতির স্থানীয় সদস্য সাজিদ আলম জানান, দ্রুত সাঁকো তৈরিতে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

- Advertisement -