লন্ডন, ২৫ জুলাই : ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বরিস জনসন দায়িত্ব নেওয়ার প্রথম ভারতীয় বংশোদ্ভূত হিসাবে হোম সেক্রেটারি হলেন প্রীতি প্যাটেল। কনজারভেটিভ নেত্রী প্রীতি ‘মোদি অনুরাগী’ হিসাবে রাজনীতিতে পরিচিত। স্বরাষ্ট্র দপ্তরে পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত সাজিদ জাভিদের জায়গায় এসেছেন প্রীতি। সাজিদ গিয়েছেন ট্রেজারি দপ্তরে।

ব্রিটেনের রাজনীতিতে প্রীতি প্যাটেল যথেষ্ট পরিচিত মুখ। ভারতীয় বংশোদ্ভূত রাজনীতিকদের মধ্যে তিনিই সবচেয়ে অভিজ্ঞতাসম্পন্ন। এক সময়ে ব্রিটেনের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন দপ্তর সহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ দপ্তরের ভার ছিল তাঁর উপর। পরে পার্লামেন্টের নিয়ম ভেঙে ইজরায়েলের দুই উচ্চপদস্থ আধিকারিকের সঙ্গে গোপনে বৈঠক করার অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে। যার জেরে ইস্তফা দিতে হয় তাঁকে। আদতে গুজরাটের বাসিন্দা প্রীতির ১৯৭২ সালে লন্ডনেই জন্ম। ২০১০ সালে কনজারভেটিভদের হয়ে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন প্রীতি। প্রথম বারেই জয়। তখন থেকেই ডেভিড ক্যামেরনের আস্থাভাজন তিনি। ২০১৩ সালে ক্যামেরনের ভারত সফরের সময় তাঁর সফরসঙ্গী ছিলেন প্রীতি। কলকাতা এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করেছিলেন তিনি। ২০১৪ সালে ভারতে লোকসভা নির্বাচনের সময় ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমের একাংশ যখন তৎকালীন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে তুলোধোনা করছে, সে সময় রুখে দাঁড়ান প্রীতি। সেই সময় থেকেই মোদি অনুরাগী হিসাবে পরিচিত তিনি।