মাথা চাড়া দিচ্ছে দালালরাজ, আধার কার্ড নিয়ে সমস্যায় গ্রামবাসী

158

রায়গঞ্জ: কেউ চাইছেন ৮০০ টাকা, আবার কেউ ১০০০ টাকা। তাও আসল না নকল জানা নেই। গ্রামেগঞ্জে আধার কার্ড তৈরি করে দেওয়ার একটা চক্র যে গড়ে গড়ে উঠেছে তা গ্রামবাসীদের কথায় উঠে এসেছে। আধার কার্ড নিয়ে প্রতি মুহূর্তে হয়রানি হতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। কার্ড তৈরির জন্য তাঁরা রাত কাটাচ্ছেন কখনও ডাকঘরের গেটে, আবার কখনও ব্যাংকের গেটে। তবে, লাইন দাঁড়িয়ে থেকেও মিলছে না কার্ড। ফলে আধার কার্ড তৈরি নিয়ে নাজেহাল হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। বুধবার ভোরে রায়গঞ্জ মুখ্য ডাকঘরে গিয়ে দেখা গেল ছোট ছেলেমেয়েদের নিয়ে মহিলারা গেটের বাইরে বসে আছেন। তাঁরা প্রত্যেকেই সারারাত ছিলেন সেখানে।

অভিযোগ, গ্রামে দালালরা আধার কার্ডের জন্য ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা চাইছে। সংশোধনের জন্য চাইছে ৫০০ টাকা। তাই বিনে পয়সায় কার্ড তৈরির জন্য এখানে রাত জাগতে হচ্ছে। তাঁরা জানান, ২০জনের বেশি এখানে নাম নেয় না। রায়গঞ্জের পাশাপাশি ইটাহার, দুর্গাপুর, হেমতাবাদ, সুভাষগঞ্জ, বিন্দোল থেকে এসেছেন বাসিন্দারা। হেনা বেগম নামে এক মহিলা বলেন, ‘মঙ্গলবার বিকেল ৪টা থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে আছি। রাতে এখানেই ছিলাম। জানিনা আজ শেষ পর্যন্ত হবে কি না।‘

- Advertisement -

রায়গঞ্জ মুখ্য ডাকঘরের পোস্টমাস্টার বিথিকা চক্রবর্তী বলেন, ‘আমরা প্রতিদিন ২০জনের আধারের কাজ করছি। কিন্তু দেখছি, মহিলারা আগের দিন বিকেল থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন। গোটা রাত থাকছেন। আমরা নিষেধ করছি ওনাদের।‘ পাশাপাশি তিনি অভিযোগ করেন, গেটের বাইরে একটা দালাল চক্র কাজ করছে। ফলে গ্রাম থেকে এসে কার্ড না করেই অনেককে ফিরে যেতে হচ্ছে। গ্রামের মানুষজন আসার আগেই ২০জনের তালিকা তৈরি করে ফেলছেন দালালরা। ফলে প্রায়দিন ফিরে যেতে হচ্ছে।