আজও দেহ নেওয়ার অনুমতি পেলেন না নিহত অভিজিতের দাদা

114
ছবি: সংগৃহীত

কলকাতা: ভোট-পরবর্তী হিংসায় নৃশংসভাবে খুন হয়েছিলেন পূর্ব কলকাতার নারকেলডাঙ্গা থানার অন্তর্গত কাঁকুড়গাছির বাসিন্দা অভিজিৎ সরকার। আদালতের নির্দেশে তাঁর দেহের দু-দুবার ময়নাতদন্ত করা হয়। কিন্তু রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর তাঁর দেহটি উপযুক্তভাবে সংরক্ষণ না করায় তা এতটাই বিকৃত হয়েছে যে পরিবারের লোকেরা দেহটি শনাক্ত করতে পারেননি। তাই অভিজিতের দেহটি সনাক্ত করার উদ্দেশ্যে আদালতের তরফে ডিএনএ পরীক্ষার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। সেই পরীক্ষার রিপোর্ট আদালতে জমা পড়ে এবং পরবর্তী পর্যায়ে তা সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়। বর্তমানে সেই রিপোর্ট হাতে পাওয়ার জন্য অভিজিতের পরিবারের দরকার ছিল আদালতের নির্দেশ। সেক্ষেত্রে সোমবার নিহত অভিজিৎ সরকারের দাদা বিশ্বজিৎ সরকার গিয়েছিলেন শিয়ালদহ আদালতে। কিন্তু এক আইনজীবীর মৃত্যুতে আদালত বন্ধ থাকায় এদিন আবেদন জানাতে পারেননি তিনি। এই পরিস্থিতিতে আগামীকাল আদালতে আবেদন জানানো হবে বলেই খবর।

অভিজিৎ সরকারের দাদা জানান, আদালতের আদেশেই সিবিআইয়ের কাছে জমা দিলে তবে তারা তার ভাইয়ের মৃতদেহ হাতে পাওয়ার ছাড়পত্র পাবেন। তিনি দুঃখের সঙ্গে বলেন যে, এতদিন যাবৎ তার ভাইয়ের মৃতদেহটি এনআরএস হাসপাতালে মর্গে পড়ে রয়েছে। রাজ্য সরকারের তরফে উপযুক্ত সংরক্ষণের ব্যবস্থা না করায় সেটি সম্পূর্ণরূপে বিকৃত হয়ে গিয়েছে। যদিও পরিবারের সদস্যরা অবশ্য সেই অবস্থাতেই মরদেহ সৎকার করতে।

- Advertisement -