ওয়েব ডেস্ক, ১ ফেব্রুয়ারিঃ আর কিছুক্ষণ পরেই লোকসভা ২০১৯ সালের অন্তর্বর্তীকালীন বাজেট পেশ করতে চলেছে নরেন্দ্র মোদির সরকার। অরুণ জেটলির অসুস্থতার কারণে এবার বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা পীযূষ গয়াল। লোকসভা ভোটের বছরে বাজেটে মোদি যেসব চমক দেবেন, তার একটা আভাস পাওয়া যাচ্ছে ইতিমধ্যেই। অর্থনীতিবিদ থেকে শুরু করে রাজনৈতিক নেতারা সকলেই একবাক্যে মেনে নিচ্ছেন, জিএসটি বা নোটবন্দির মতো দুঃসাহস ভোটের বছরে দেখানোর চেষ্টা মোদি অন্তত করবেন না। প্রথাগতভাবেই অন্তর্বর্তীকালীন বাজেট হবে পপুলিস্ট বা জনমুখী। যেসব ছাড়ের ব্যাপারে আগাম ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে তার মধ্যে থাকছে—

আয়কর ছাড়- আয়কর ছাড়ের ঊর্ধ্বসীমা যে এবার বাড়ছে তার ইঙ্গিত মিলেছে রাষ্ট্রপতির ভাষণেই। কেউ কেউ বলছেন করছাড়ের ঊর্ধ্বসীমা ২.৫ লক্ষ টাকা থেকে এক লাফে দ্বিগুণ হতে পারে। যাঁদের এতটা উচ্চাশা নেই তাঁরাও মনে করছেন এবার সাধারণ মানুষের জন্য আয়কর ছাড়ের ঊর্ধ্বসীমা বেড়ে ৩ লক্ষ টাকা এবং বয়স্কদের জন্য সাড়ে ৩ লক্ষ টাকা হতে চলেছে।

৮০সি-তে ছাড়- ২.৫ লক্ষ টাকার উপরে যাঁদের আয় এতদিন তাঁরা ৮০সি –তে বিনিয়োগের মাধ্যমে দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয়কর ছাড় পেতেন। এবার তার ঊর্ধ্বসীমা বেড়ে আড়াই লক্ষ টাকা হতে পারে বলে মনে করছেন পোড়খাওয়া নেতারা।

স্বাস্থ্যখাতে ছাড়- মেডিকেল রি-ইমবার্সমেন্ট এবং চিকিৎসার জন্য ভ্রমণে বিশেষ ছাড় ঘোষণা করতে পারেন অর্থমন্ত্রী। কনফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান ইন্ডাস্ট্রিজের প্রস্তাবমতো ৪০ হাজার টাকা পর্যন্ত এই দুই খাতে ছাড় দিতে পারে কেন্দ্র।