বীরপাড়ার কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাসের বেহাল দশায় ক্ষোভ বাড়ছে

351

বীরপাড়া, ২২ জুলাই : নামেই কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাস !  বাস দাঁড়ানোর জায়গায় মাথার ওপর ছাউনি নেই । রোদ বৃষ্টিতে খোলা আকাশের নীচেই দাঁড়িয়ে বিভিন্ন রুটের সরকারি ও বেসরকারি বাস ধরতে হয় কয়েক হাজার যাত্রীকে।  গোটা বাস টার্মিনাসটি ভরে গিয়েছে নানা আকারের গর্তে। বর্ষার জল জমে সেগুলি বিপজ্জনক হয়ে উঠেছে। স্বাভাবিকভাবেই, আলিপুরদুয়ার জেলার বীরপাড়ার বীর বিরসা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাসের বেহাল দশায় ক্ষোভে ফুঁসছেন সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে বাস মালিকদের সংগঠন।

বীরপাড়া চৌপথির কাছে মজদুর ক্লাবের মাঠে বাস টার্মিনাসটি তৈরির কাজ শুরু হয় ২০০৮ সালে। বীরপাড়া বাজারে একসময় অবস্থিত পুরোনো বাসস্ট্যান্ডে বাস দাঁড়ানোর পর্যাপ্ত জায়গার অভাব  এবং বীরপাড়াকে যানজট থেকে মুক্তি দিতে বীরপাড়া চৌপথিতে নয়া বাস টার্মিনাস তৈরির কাজ শুরু হয়। মাদারিহাট বীরপাড়া পঞ্চায়েত সমিতি সূত্রের খবর,  ২০০৮ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত টার্মিনাসের নির্মাণকাজে  প্রায় ২৭ লক্ষ টাকা ব্যয় করা হয়েছিল। ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনের পর নয়া বাস টার্মিনাসটির উদ্বোধন করা হয়। মাদারিহাট বীরপাড়া পঞ্চায়েত সমিতির অভিযোগ, ২০০৮ সালে বাস  টার্মিনাসটি তৈরির কাজ শুরু করার আগে  পরিবহণ দপ্তরের কাছে প্রায় এক কোটি টাকা চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু, তার এক চতুর্থাংশও মেলেনি। স্বাভাবিকভাবেই, অসম্পূর্ণ পরিকাঠামো নিয়েই টার্মিনাসটির  উদ্বোধন করা হয়। ফলে, উদ্বোধনের তিন বছরের মধ্যে  টার্মিনাসের বেহাল দশায় সাধারণ মানুষের ক্ষোভ বাড়ছে।

- Advertisement -

টার্মিনাসে প্রবেশ করার একমাত্র রাস্তাটি এখনও  কাঁচা। সেটিও গর্তে ভরে গিয়েছে। বাস টার্মিনাস থেকে বের হওয়ার দ্বিতীয় রাস্তাটি বেদখল যাওয়ায় একটি রাস্তা  দিয়েই বাস ঢুকছে এবং বের হচ্ছে। বীরপাড়া ডুয়ার্স মিনিবাস ওনার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোশিয়েশনের সম্পাদক বংশী দত্ত বলেন, ‘বাস টার্মিনাসটির পরিকাঠামো বলতে কিছু নেই। রাতে টার্মিনাসে রাখা বাসের নিরাপত্তা থাকছে না। আলোর ব্যবস্থা নেই। এর আগে,  রাতের অন্ধকারে একাধিকবার  বাসের ব্যাটারি সহ যন্ত্রাংশ চুরি হয়েছে।’

মাদারিহাট বীরপাড়া পঞ্চায়েত সমিতির পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ রশিদুল আলম বলেন, ‘বীরপাড়ার বীর বীরসা বাস  টার্মিনাসের  পরিকাঠামো উন্নয়নের জন্য প্রায়  দেড় কোটি টাকার  পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে মাদারিহাট বীরপাড়া পঞ্চায়েত সমিতি। বাস টার্মিনাসটি ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা করে টাকার জন্য সংশ্লিষ্ট  পঞ্চায়েত সমিতি   উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তর  ও রাজ্য পরিবহণ দপ্তরের দ্বারস্থ হয়েছে।’

ছবি : বীরপাড়ার বীর বিরসা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাস। – মোস্তাক মোরশেদ হোসেন