লখনউ, ২১ ডিসেম্বরঃ উত্তরপ্রদেশে শুক্রবারের বিক্ষোভের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ১১। যদিও ছ’জনের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি পুলিশের। কিন্তু হাসপাতালগুলো থেকে পাওয়া তথ্য় জানাচ্ছে, শুধুমাত্র গতকালের বিক্ষোভের জেরেই উত্তরপ্রদেশে মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের।

উত্তরপ্রদেশের ডিজিপি ওপি সিং জানিয়েছেন, শুক্রবারের বিক্ষোভে একটিও গুলি চলেনি। কিন্তু হতাহতদের অনেকের শরীরেই বুলেটের ক্ষত রয়েছে। এমনকি আহতদের মধ্যে একাধিক পুলিশকর্মীও রয়েছেন। নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ক্রমশ ছড়িয়ে পড়ছে বিভিন্ন এলাকায়। নতুন করে হিংসার খবর পাওয়া গিয়েছে ভদোদরা এবং জবলপুর থেকেও। উত্তরপ্রদেশের বারাণসী ও লখনউ সহ মোট ২১টি জেলায় বন্ধ রয়েছে ইন্টারনেট পরিসেবা।

বিক্ষোভের জেরে উত্তরপ্রদেশে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত মেরঠ। মেরঠ মেডিকেল কলেজেই চার জনের মৃত্যু হয়েছে। বিজনোর থেকে আরও দু’জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। মুজফফরনগর, ফিরোজাবাদা, সমভাল এবং কানপুর থেকে একজন করে মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে।