সৌরভকে দেখতে উডল্যান্ডসে দেবী শেঠি

210

কলকাতা: সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে দেখতে শহরে এসে পৌঁছোলেন প্রখ্যাত চিকিৎসক দেবী শেঠি। মঙ্গলবার কলকাতা বিমানবন্দরে তিনি এসে পৌঁছোন সকাল ৮ টা ৩৫ মিনিট নাগাদ। সেখান থেকেই সোজা উডল্যান্ডস হাসপাতালে পৌঁছে গিয়ে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের মেডিক্যাল রেকর্ডও দেখেন তিনি। দেবী শেঠির পরামর্শ অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে উডল্যান্ডস হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ, তা একপ্রকার স্পষ্ট।

যদিও হাসপাতাল সূত্রে খবর, উদ্বেগের কোনও কারণই নেই। ভালো আছেন মহারাজ। আপাতত তাঁর অন্য দুই ধমনীতে স্টেন্ট বসানো হচ্ছে না। তবে হাসপাতাল থেকে ফিরে মাসখানেক বিশ্রাম নিতে হবে তাঁকে। রাতে ভালো ঘুম হয়েছে। সকালে প্রাতঃরাশ সেরেছেন। আগামিকাল তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছাড়া হবে। বাড়িতে নিয়মিত পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। দিন ১৫-এর মধ্যে সৌরভের অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। আজই (মঙ্গলবার) তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হতে পারত। তবে তা করা হচ্ছে না। আগামিকাল (বুধবার) হাসপাতাল থেকে ছুটি পাচ্ছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। বিশিষ্ট চিকিৎসক দেবী শেঠি বলেন, ‘আজই বাড়ি ফিরতে পারতেন। আজ আমি এসেছি বলে যাচ্ছেন না।’

- Advertisement -

দেবী শেঠি বলেন, ‘সৌরভের হৃদপিণ্ড ভাল আছে। হৃদপিণ্ড ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি। ২০ বছরের যুবকের মতোই তাঁর হৃদপিণ্ড আছে। পুরোপুরি সুস্থ আছেন তিনি। সৌরভের জীবনযাপনের ধরনেও কোনও পরিবর্তন আসবে না। এমনকী সৌরভ ম্যারাথনে দৌড়াতে পারবেন। এমনকী বিমান চালানোর ধকলও নিতে পারবেন।’

এদিন তিনি আরও বলেন, ‘সৌরভের মতো একজন প্রাক্তন খেলোয়াড় মাত্র ৪৮ বছরেই হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ায় হৃদরোগের উপর বাড়তি নজর দিচ্ছেন সারা বিশ্বের মানুষ। সবাই ভাবছেন যে সৌরভের মতো একজন প্রাক্তন খেলোয়াড়ের কীভাবে মাত্র ৪৮ বছরেই হৃদরোগ হতে পারে। কিন্তু ভারতের মতো দেশে এটাই বাস্তব ছবি। ভারতীয়রা যে জীবনযাপনে অভ্যস্ত, তাতে এটা সাধারণ বিষয়। কোনও মানুষ কতটা ফিট, কতটা শক্তিশালী, তার উপর নির্ভর করে না।’