ভ্যাকসিনের জন্য ১ হাজার স্বেচ্ছাসেবককে আহ্বান

469

কলকাতা : করোনা পরিস্থিতি ক্রমশই নিয়ন্ত্রণে আসছে, দাবি রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের। এদিনও রাজ্যের বুলেটিন অনুসারে সংক্রামিতের সংখ্যা বাড়েনি। তবে সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আনতে ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শুরু করতে চায় নাইসেড। দেশের মধ্যে ২৫,৮০০ জনের শরীরে করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে। যার মধ্যে ১ হাজারটি নমুনাও ইতিমধ্যে পাঠানো হয়েছে কলকাতায়। নাইসেডের তরফে সেই ভ্যাকসিন প্রয়োগের জন্য স্বেচ্ছাসেবক আহ্বান করা হয়েছে। নাইসেড কর্তা বলেন, আমরা স্বেচ্ছাসেবক খুঁজছি। যাঁদের বাড়ি এই ইনস্টিটিউটের থেকে ১০ কিলোমিটারের মধ্যে। তবে তাদের সই করে অঙ্গীকার করতে হবে যে, আগামী ১ বছরের মধ্যে টিকা গ্রহণকারী স্বেচ্ছাসেবক তাঁর বর্তমান ঠিকানা ছেড়ে অন্যত্র যাবেন না। কারণ তাঁদের ওপর কড়া নজরদারি চালাবেন চিকিত্সকরা। ওই টিকা বা ভ্যাকসিন কতটা সাফল্য পেল, তা সম্পূর্ণ নির্ভর করবে পর্যবেক্ষণ এবং সামগ্রিক তথ্যের ভিত্তিতে তৈরি করা রিপোর্টের ওপরেই। ইতিমধ্যেই রাজ্যে প্রথম স্বেচ্ছাসেবক হতে চেয়েছেন কলকাতার মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। এছাড়াও  কলকাতার স্বাস্থ্য বিষয়ক পুরপ্রশাসক অতীন ঘোষ সহ বেশ কয়েকজন ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন। তবে স্বেচ্ছাসেবক হতে চাইলে ফোন অথবা ই-মেলের মাধ্যমে আবেদন করতে পারেন বলে নাইসেডের তরফে জানানো হয়েছে। ১৮ বছর বয়স হলে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে। পয়েন্ট ৫ মিলি ডোজ দেওয়া হবে প্রথমে। তার ২৮ দিনের মাথায় একই ডোজ ফের দেওয়া হবে।