মেখলিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে কে হচ্ছেন প্রার্থী? প্রশ্নের উত্তরের সন্ধানে দুই প্রতিপক্ষ

129
সংগৃহীত

মেখলিগঞ্জ: শেষ অবধি দলের তরফে কাকে প্রার্থী করা হচ্ছে? শুক্রবার বিধানসভা নির্বাচনের দিন ঘোষণার পর থেকেই এই প্রশ্ন ঘুরে বেড়াচ্ছে রাজ্যের এক নম্বর কোচবিহার জেলার মেখলিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রেও। তবে এই কেন্দ্রে রাজনৈতিক দলগুলির মধ্যে দুই ফুল অর্থাৎ তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপির নেতা-কর্মীদের মনেই এই প্রশ্নের উত্তর জানার বেশি চেষ্টা চলছে বলে সূত্রের খবর। যে কথা কার্যত স্বীকারও করে নিয়েছেন উভয় দলের নেতারা। তাঁরা জানিয়েছেন, এতদিন অবধি বেশিরভাগই হার-জিতের বিষয় নিয়েই বেশি আলোচনা করতে ব্যস্ত ছিলেন। তবে শুক্রবার নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণার পর থেকে অধিকাংশই তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে চাইছেন কে প্রার্থী হচ্ছেন। বিষয়টি নিয়ে একাংশ চিন্তার মধ্যেও রয়েছেন বলে জানিয়েছেন। কারণ এই কেন্দ্রে এবার দুই ফুলের মধ্যেই প্ৰার্থীর জন্য একাধিক দাবিদার রয়েছেন। সমর্থকরাও মনে প্রাণে চাইছেন তাঁদের ঘনিষ্ঠজনই প্রার্থী হোক। তাই সমস্ত কিছু ভুলে কে প্রার্থী হচ্ছেন, বর্তমানে সেদিকেই নজর অধিকাংশেরই।

রাজনৈতিক মহলের ধারণা, এবার এই কেন্দ্রে মূল লড়াই হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপির মধ্যে। উভয় পক্ষই এই আসনে জয়ের জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। তৃণমূলের অবশ্য আশা, এই আসনে এবার তাদের ফল আরও অনেক বেশি ভালো হবে। এর কারণ হিসেবে গোটা রাজ্যের পাশাপাশি মেখলিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রেরও একাধিক উন্নয়নকে রেখে দিয়েছেন। অপরদিকে, বিজেপি নেতৃত্বের বক্তব্য, বর্তমানে মেখলিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রেও তাঁদের ব্যাপক জনসমর্থন রয়েছে। তার উপর কেন্দ্রীয় সরকারেরও বিভিন্ন জনকল্যাণ মূলক প্রকল্প রয়েছে। তাই এই আসন এবার পদ্মফুলের দখলে যাবে। প্রার্থী নিয়েও তাঁরা অযথা চিন্তা করতে নারাজ বলে জানিয়েছেন দুই দলের নেতা-কর্মীরাই। তাঁদের কথায়, তাঁরা দলের স্বার্থে কাজ করে চলেছেন। তাই দল যাকেই প্রার্থী করুক না কেন, তাঁরা ওই প্রার্থীর হয়ে কাজ করবেন। দলীয় প্রার্থীকে জেতানোই তাঁদের লক্ষ্য থাকবে।

- Advertisement -

তবে এবার পরিস্থিতি অনেকটাই বদল হবে বলে রাজনৈতিক মহলের ধারণা। তারা অবশ্য মনে করছেন, এই কেন্দ্রেও এবার দুই ফুলের মধ্যে লড়াইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে। সব মিলিয়ে মেখলিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রেও তাঁদের দলের ভালো ফলের বিষয়ে তীব্র আশাবাদী তৃণমূল কংগ্রেসের মেখলিগঞ্জ ব্লক সভাপতি উদয় রায়। অপরদিকে, বিজেপির ভালো ফলের আশা করছেন সংগঠনের উত্তর মণ্ডল সভাপতি বিশ্বনাথ শীল। অর্থাৎ উভয় দলই জয়ের অপেক্ষায় রয়েছেন।