জোড়াবাগানে নাবালিকা খুনের ঘটনায় গ্রেপ্তার কেয়ারটেকার

79
ছবিটি সংগৃহীত

কলকাতা : জোড়াবাগান এলাকায় ৯ বছরের শিশুর বিবস্ত্র মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় বাড়ির কেয়ারটেকার রামকুমারকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ। সেই সঙ্গে ওই নাবালিকা খুনের ঘটনার তদন্তভার কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা শাখার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।
পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত নাবালিকার বাড়ি শোভাবাজারে। সে স্থানীয় একটি স্কুলে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী ছিল। প্রতি সপ্তাহের দুই থেকে তিন দিন জোড়াবাগানে তার মামা বাড়িতে যেত সে। বুধবার বিকেলেও সে গিয়েছিল তার মামাবাড়িতে। তারপর থেকেই তার আর কোন হদিস পাওয়া যাচ্ছিল না। মৃত নাবালিকাটির পরিবারের তরফে নিখোঁজ ডায়েরি করা হয়েছিল।
এরপরেই বৃহস্পতিবার সকালে জোড়াবাগান থানার অন্তর্গত গিরিশ পার্কের লাগোয়া একটি বাড়ির তিন তলার ছাদ পরিষ্কার করতে গিয়ে পরিচারিকা রক্তাক্ত অবস্থায় ওই নাবালিকার দেহটি পড়ে থাকতে দেখেন। পুলিশের ধারণা, ওই নাবালিকাকে ধর্ষণ করে নৃশংস ভাবে খুন করা হয়েছে। তার শরীরে কোন জামা কাপড় ছিলনা। ওই নাবালিকার মাথার চুল টেনে ছিঁড়ে ফেলা হয়েছিল সেই সঙ্গে চারটি দাঁতও ভেঙে দেওয়া হয়েছিল। খবর পেয়ে কলকাতা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার( ক্রাইম) মুরলীধর শর্মার নেতৃত্বে বেশ কিছু উচ্চপদস্থ পুলিশ অফিসাররা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন।আনা হয়েছিল ডগ স্কোয়াডের কুকুরকেও।

পুলিশ সূত্রে পাওয়া খবর, অনুযায়ী দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদের পর গত রাতে ওই কেয়ারটেকার অপরাধের কথা স্বীকার করে নেয়। এরপরেই পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। ঘটনাস্থল রাজ্যের শিশু ও নারী কল্যাণ দপ্তরের মন্ত্রী ডাক্তার শশী পাঁজার বিধানসভা এলাকায় পড়ছে। এদিন তিনি এলাকায় ছুটে যান। বিজেপি মহিলা মোর্চার সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পলের নেতৃত্বে বিজেপি প্রতিনিধিদের একটি দলও শোভাবাজার মৃতের বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারের লোকেদের সঙ্গে কথা বলে পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

- Advertisement -