মাস্ক না পরায় ১৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা

280

বীরপাড়া: লকডাউন শিথিল হতেই কারও মাস্ক নেমে এসেছিল নাকের নীচে। আবার কারও মাস্ক ঝুলতে দেখা গিয়েছে গলায়। কেউ আবার মাস্ক ব্যবহার করা ছেড়েই দেন। এমনকি, বীরপাড়ায় চারজন করোনা সংক্রমণের শিকার হওয়ার পরও মাস্ক নিয়ে হেলদোল দেখা যাচ্ছিল না অনেকেরই।

অবশেষে বৃহস্পতিবার থেকে পুলিশ করোনা সংক্রমণ রুখতে কড়া অবস্থান নেওয়া শুরু করল। বীরপাড়া থানার ওসি পালজার ভুটিয়া বলেন, মাস্ক না পরায় বৃহস্পতিবার বীরপাড়া থানার পুলিশ ১৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে।

- Advertisement -

তিনি জানান, মাস্ক ব্যবহার করতেই হবে। কাউকে কোনওরকম ছাড় দেওয়া হবে না। এদিকে, করোনো সংক্রামিত রোগী পাওয়ার পর থেকেই অবশ্য বীরপাড়ার বিভিন্ন রাস্তাঘাটে লোকজন কমই দেখা যাচ্ছে। এদিন শুনশান ছিল কনটেনমেন্ট জোনগুলি।

এদিকে, আলিপুরদুয়ার জেলার আরও এক শহর ফালাকাটায় মাস্ক না পরায় পুলিশি ধরপাকড় শুরু হল। বৃহস্পতিবার ফালাকাটা থানার পুলিশের একটি টিম শহরের ব্যাংক রোড, বাসস্ট্যান্ড, মিলরোড, ও নেতাজিরোড সহ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালায়। মাস্ক না পরায় ৫ জনকে পাকড়াও করে পুলিশ৷

সকালে পুলিশের একটি দল শহরের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে যাঁরা মাস্ক না পরা বহু মানুষকে সতর্ক করে বাড়ি পাঠিয়ে দেন৷ অনেককে ওষুধের দোকান থেকে মাস্ক কিনে পরানোর পরও ছেড়ে দেওয়া হয়৷ কয়েকটি অটো, টোটো ও ছোট গাড়ির যাত্রীকে মাস্ক না পড়ায় নামিয়েও দেয় পুলিশ৷

তারপরও মানুষজন সচেতন না হওয়ায় ফালাকাটা থানার সাব ইন্সপেক্টর অমিত শর্মার নেতৃত্বে এদিন দুপুর থেকে ধরপাকড় শুরু হয়। এই বিষয়ে ফালাকাটা থানার আইসি দেবদত্ত বন্দোপাধ্যায় বলেন, মাস্ক না পরায় শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হচ্ছে৷