পাকিস্তানে ৪৯ জন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা

461

ইসলামাবাদ: পাকিস্তান সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন সেদেশের সাংবাদিকরা। তবে তাঁদের প্রতিবাদ যে সরকার মানবে না, তা বোঝাতে ব্যাপক ধরপাকড় চলছে সাংবাদিক, লেখকদের। ৪৯ জন সাংবাদিক ও সোশ্যাল মিডিয়াকর্মীর বিরুদ্ধে ইলেকট্রনিক্স অপরাধ প্রতিরোধ আইনে মামলা রুজু করেছে পাকিস্তানের ফেডারেল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি (এফআইএ)। মামলা প্রত্যাহার না হলে দেশজুড়ে বিক্ষোভের হুমকি দিয়েছেন সাংবাদিকরা। এফআইএ-র এই পদক্ষেপের নিন্দা করেছে পাকিস্তানের মানবাধিকার কমিশন (এইচআরসিপি)।

এফআইএ-র অভিযোগ, কিছু সাংবাদিক এমন কিছু করছেন, যার ফলে দেশের সুরক্ষায় আঘাত আসতে পারে। যে ৪৯ জন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে, তাঁদের বিরুদ্ধে প্রমাণ সহ সুনির্দিষ্ট অভিযোগ আছে। দেশের সুরক্ষার পক্ষে ক্ষতিকারক বলে প্রমাণিত হলে তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে। এফআইএ এই হুঁশিয়ারি দিলেও অন্যতম অভিযুক্ত সাংবাদিক মুর্তাজা সোলাংগি সংবিধানসম্মত স্বাধীনতার জন্য লড়াই চালিয়ে যাবেন বলে মন্তব্য করেছেন। তিনি টুইটে লেখেন, ‘আমরা ফ্যাসিবাদী গুন্ডাদের সামনে মাথা নত করব না। আমরা আমাদের মৌলিক অধিকার সমর্পণ করব না।’

- Advertisement -

পাক সরকারের এই পদক্ষেপ মেনে নেওয়া হবে না বলে জানিয়েছে পাকিস্তান ফেডারেল ইউনিয়ন অফ জার্নালিস্ট। ইউনিয়নের তরফে জানানো হয়েছে, সরকার মামলাগুলি প্রত্যাহার না করলে দেশজুড়ে প্রতিবাদে নামবে তারা। বিশিষ্ট সাংবাদিক মুবাশির জায়িদি টুইটে বলেন, ’৪৯ জন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা ভাবা যায় না।’ পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কিন্তু সম্প্রতি বলেছিলেন, সেদেশে সাংবাদিকদের ওপর কখনও আক্রমণ নেমে আসবে না। মিডিয়ার যে রক্ষাকবচ আছে, সরকারের তা নেই। যাঁদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে, তাঁরা প্রত্যেকে পাক সরকারের সমালোচক বলে জানা গিয়েছে। সেনাবাহিনীরও সমালোচনা করেন তাঁরা।