মানস ভুঁইয়ার অফিসে সিবিআই

68

কলকাতা: ভুয়ো অর্থলগ্নি সংস্থা আইকোর মামলায় শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে যেতে রাজি হননি। এরপর সিবিআই আধিকারিকরা শিল্পভবনে গিয়ে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিলেন। এবার সিজিও কমপ্লেক্সে গেলেন না রাজ্যের জলসম্পদ উন্নয়নমন্ত্রী মানস ভুঁইয়াও। সিবিআইয়ের তিন আধিকারিক খাদ্যভবনে তাঁর অফিসে গিয়ে প্রায় ২ ঘণ্টা তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করলেন।

সোমবার দুপুর ১২টা নাগাদ মানসবাবুকে সিজিও কমপ্লেক্সে হাজিরা দিতে নোটিশ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তাঁর এলাকায় বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। সেজন্য তিনি সিজিও কমপ্লেক্সে যেতে পারবেন না বলে এদিন সকালেই সিবিআই আধিকারিকদের ইমেল করে জানিয়ে দেন। প্রয়োজনে আধিকারিকরা তাঁর অফিসে এসে তাঁর সঙ্গে কথা বলতে পারেন বলে তিনি প্রস্তাব দেন। এরপর বেলা ১টা নাগাদ সিবিআইয়ের আধিকারিকরা খাদ্যভবনে যান। সেখানে প্রায় ২ ঘণ্টা তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

- Advertisement -

সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে, একটি ছবিতে দেখা গিয়েছে আইকোরের একটি অনুষ্ঠানে মানসবাবু উপস্থিত হয়েছেন। তিনি কী কারণে সেখানে গিয়েছিলেন, তা জানতেই তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন আধিকারিকরা। আইকোরের সঙ্গে তাঁর কোনও আর্থিক লেনদেন হয়েছিল কিনা, সেটাও এদিন তাঁর কাছে জানতে চান সিবিআইয়ের আধিকারিকরা। তবে এই নিয়ে আধিকারিকরা কোনও মন্তব্য করতে চাননি। মানসবাবুও এই নিয়ে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে চাননি।

এই মামলায় শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে বিধানসভা ভোটের আগে ডেকে পাঠিয়েছিল সিবিআই। কিন্তু ভোটের প্রচারে ব্যস্ত থাকার কারণ দেখিয়ে তিনি তখন হাজিরা দেননি। এরপর গত সপ্তাহে তাঁকে ফের সিবিআই নোটিশ পাঠায়। কিন্তু তিনি ব্যস্ত থাকায় সেখানে যেতে পারবেন না বলে জানিয়ে দেন। তখন আধিকারিকরারা ক্যামাক স্ট্রিটে শিল্পভবনে গিয়ে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এরপর রাজ্যের আরেক মন্ত্রী মানসবাবুকে তলব করেছিল সিবিআই। সূত্রের খবর, ফের সিবিআই রাজ্যের এই দুই মন্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে।