রাজ্যের অনুমতি ছাড়াই তদন্ত করতে পারে সিবিআই: সলিসিটর জেনারেল

125
ছবিটি সংগৃহীত

কলকাতা: ‘একজন দোষী কখনও তদন্তকারী সংস্থা বেছে নিতে পারে না’ মন্তব্য সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতার। অনুপ মাঝি ওরফে লালা সংক্রান্ত মামলার শুনানিতে মঙ্গলবার বিচারপতি রাজেশ বিন্দাল ও বিচারপতি অনিরুদ্ধ রায়ের ডিভিশন বেঞ্চে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সওয়াল করেন। শুনানিতে তিনি বলেন, ‘সিবিআই হোক বা সিআইডির তদন্তের মুখোমুখি হতেই হবে তাকে(অনুপ মাজি)। একজন দোষী তদন্তকারী সংস্থা বেছে নিতে পারে না। রেলের জায়গায় কেন্দ্রীয় সরকারের অফিসারদের সাথে যুক্ত হয়ে বেআইনি কয়লা উত্তোলন ও পাচারের কাজে যুক্ত অনুপ মাঝি। আন্তঃরাজ্যে প্রভাব রয়েছে এই চক্রের। এক্ষেত্রে সুপ্রিমকোর্টের রায় আছে, রাজ্যের অনুমতি ছাড়াই সিবিআই তদন্ত করতে পারে। পাশাপাশি এখানে তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে বেশ কিছুদিন আগেই। মাঝপথে কখনও সেই তদন্ত আটকানো যায় না। বিহারে একাধিক উচ্চপদস্থ অফিসারের বিরুদ্ধে সিবিআই তদন্ত হয়েছে।’ অন্যদিকে রাজ্যের তরফে এডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত এদিন ফের রাজ্যের এক্তিয়ারভুক্ত এলাকায় অনুমতি ছাড়া সিবিআই তদন্ত করতে পারে না বলে একাধিক যুক্তি দেন।

কয়লা পাচার কাণ্ডে অনুপ মাজি ওরফে লালার এফআইআর খারিজ সংক্রান্ত মামলায় সিঙ্গেল বেঞ্চের রায়ের বিরুদ্ধে গতকাল ডিভিশন বেঞ্চে আপিল করে সিবিআই। ৩ ফেব্রুয়ারি বিচারপতি সব্যসাচী ভট্টাচার্যের সিঙ্গল বেঞ্চ এই মামলার রায়ে জানিয়েছিল, ‘রেলের এক্তিয়ারভুক্ত এলাকায় নির্বিঘ্নে তদন্ত করতে পারে সিবিআই। পাশাপাশি সিবিআই রাজ্যের এক্তিয়ারভুক্ত এলাকায়ও তদন্ত করতে পারে। কিন্তু রাজ্যের আওতাধীন এলাকায় রাজ্যের অনুমতি নিয়েই তদন্ত করতে হবে।’

- Advertisement -

এদিকে এদিন সময়ের অভাবে শুনানি স্থগিত হয়ে যায়। আগামীকাল ফের এই মামলার শুনানি। প্রসঙ্গত, রায়ের এই অংশে আপত্তি জানিয়ে গতকাল বিচারপতি রাজেশ বিন্দাল ও বিচারপতি অনিরুদ্ধ রায়ের ডিভিশন বেঞ্চে মামলা দায়ের করেছিল সিবিআই।