অভিষেকের বাড়িতে সিবিআইয়ের নোটিশ, তৃণমূল-বিজেপির গটআপ গেম: সূর্যকান্ত মিশ্র

116

বর্ধমান: এই রাজ্যের বিধানসভা ভোটের আগে অতি তৎপর সিবিআই। তবে সিবিআই অফিসারদের রবিবার তৃণমূল যুব কংগ্রেস নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে যাওয়ার বিষয়টিকে গুরুত্ব দেওয়ার মত কিছু দেখছেন না বামেরা। এদিন সূর্যকান্ত মিশ্র সাংবাদিকদের বলেন, সবে খেলা শুরু হয়েছে। তবে বেশিদূর যাবে না। কিছু হবেও না। ওদের বোঝাপড়া ঠিক আছে, ঠিকই থাকবে। যেরকম পুলিশ কমিশনারেরও কিছুই হয়নি। পুলিশ কমিশনারকে কি সিবিআই আ্যারেস্ট করেছিল? তাই এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দেওয়ার মতো কিছু দেখছেন বলে সূর্যকান্তবাবু জানিয়ে দেন।

রবিবার পূর্ব বর্ধমানে জামালপুরে ছিল বামেদের জনসভা। সেই সভার প্রধান বক্তা ছিলেন সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র। সেই সভা থেকে সূর্যকান্তবাবু সাংসদ তথা তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরাকে সিবিআই নোটিশ পাঠানোকে বিজেপি ও তৃণমূলের গটআপ গেম বলে মন্তব্য করেন।

- Advertisement -

তিনি আরও বলেন, ‘সবটাই পূর্ব পরিকল্পিত। বিজেপি তৃণমূলের বাড়িতে পুলিস পাঠাচ্ছে। হিম্মত থাকলে বামপন্থী বা আমার বাড়িতে পুলিশ পাঠান। পশ্চিম বর্ধমান থেকে কয়লা পাচার হয়ে তা সুন্দরবনে নদীর ধারে ইট ভাটায় চলে যাচ্ছে। আর ওই ভাটার মালিক গোরু পাচারের সঙ্গেও যুক্ত রয়েছে। গোরু পাচারের টাকাও চলে যাচ্ছে নেতা-মন্ত্রীদের পকেটে।‘

কেন্দ্রের নয়া কৃষি আইনের প্রসঙ্গ তুলে ধরে সূর্যকান্তবাবু বলেন, ‘আগামী দিনে দেশের সাধারণ মানুষ বিজেপিকে ধুয়ে মুছে সাফ করে দেবে। সিবিআইয়ের ভূমিকাকে কটাক্ষ করে সূর্যকান্তবাবু বলেন, প্রথমে ওরা পরিকল্পনা করেছিলেন বামেদের ব্রিগেড সভার দিন হরিশ চ্যাটার্জী স্ট্রিটে রেড হবে। গতবারের ব্রিগেড সভার মতোই। এখন প্রধানমন্ত্রী দায়িত্ব নিয়েছেন, বামেদের ব্রিগেড সভা যেদিন হবে সেদিন প্রধানমন্ত্রী বাংলায় থাকবেন। কারণ টিভিতেও তৃণমূল আর বিজেপির মধ্যে ভাগ করতে তো হবে। সেই কারণেই মনে হচ্ছে সিবিআই লোক দেখানো। আসলে তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে গটআপ চলছে।

পাশাপাশি ব্রিগেডের সমর্থনে প্যারোডি টুম্পা সোনা গানের প্রসঙ্গে সূর্যকান্তবাবু বলেন, এই রকম ‘প্যারোডি’ আগে অনেক হয়েছে। গানের বিষয়বস্তুটাই মূল কথা। কোন বিষয়বস্তুকে বুঝতে একটা গান যদি সাহায্য করে মধ্যে কোন অসুবিধা নেই বলে সূর্যকান্তবাবু এদিন জানিয়ে দেন।