জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির ব্যাখ্যা দিল কেন্দ্র

93

নয়াদিল্লি: মঙ্গলবারের পর বুধবারও বাড়ল পেট্রোল ও ডিজেলের দাম। কলকাতায় এক লিটার পেট্রোল বিক্রি হয়েছে ৮৮ টাকা ৯২ পয়সায়। ডিজেলের দাম ৮১ টাকা ৩১ পয়সা। দিল্লিতে লিটার প্রতি পেট্রোলের দাম ৩০ পয়সা বেড়ে ৮৭ টাকা ৬০ পয়সা হয়েছে। ২৯ পয়সা বেড়ে ডিজেলের দাম দাঁড়িয়েছে ৭৭ টাকা ৭৩ পয়সা। মুম্বইয়ে তা য়থাক্রমে ৯৪ টাকা ১২ পয়সা এবং ৮৪ টাকা ৬৩ পয়সা।

জানুয়ারি থেকে ধারাবাহিকভাবে পেট্রোপণ্যের দাম বাড়ছে। পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়া নিয়ে কেন্দ্রকে নিশানা করছে বিরোধী দলগুলি। বুধবার সংসদে তেলের দাম নিয়ে সরকারকে কটাক্ষ করেন সমাজবাদী পার্টির সাংসদ বিশ্বম্ভরপ্রসাদ নিশাদ। তাঁর বক্তব্য, সীতা মাতার দেশ নেপাল ও রাবণের লঙ্কায় (শ্রীলঙ্কা) পেট্রোল ও ডিজেলের দাম ভারতের চেয়ে অনেক কম। ওইসব দেশের জনগণ কম দামে জ্বালানি তেল কেনার সুযোগ পেলে ভারতীয়রা কেন তা পাবেন না সেই প্রশ্ন তোলেন সমাজবাদী পার্টির সাংসদ।

- Advertisement -

জবাব দিতে গিয়ে কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান পালটা যুক্তি দেন, ওই সব দেশে এমন অনেক জিনিস আছে যেগুলির দাম ভারতের থেকে বেশি। উদাহরণ হিসাবে কেরোসিন তেলের কথা উল্লেখ করেন প্রধান। তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও নেপালে এক লিটার কেরোসিনের দাম ৫৭-৫৯ টাকা। ভারতে তা মাত্র ৩২ টাকা প্রতি লিটার। মন্ত্রী বলেন, লকডাউন চলকালীন ও পরবর্তী বেশ কিছুদিন পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়েনি। এখন আন্তর্জাতিক বাজার দরের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে তেল সংস্থাগুলি দাম বাড়াচ্ছে। এই নিয়ে বিরোধী দলগুলি বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে বলেও দাবি করেন তিনি। তবে দেশে তেলের ওপর করের চড়া হার নিয়ে কোনও মন্তব্য করেননি পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী।