‘নাফেডে’র গুদামেই রয়ে গেল কেন্দ্রের পাঠান ডাল, জটিলতা শুরু

2350

স্বরূপ বিশ্বাস, কলকাতা: রাজ্যকে পাঠানো কেন্দ্রের ডাল ‘নাফেডে’র গুদামেই রয়ে গেল৷ চাহিদামতো ডাল না মেলায় প্রধানমন্ত্রী গরিব যোজনায় রাজ্যের রেশন গ্রাহকদের শুধুই পাঁচ কেজি চাল দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল খাদ্য দপ্তর৷ চাল-ডাল নিয়ে সর্বশেষ পরিস্থিতির কথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও মুখ্যসচিব রাজীব সিনহাকেও জানিয়েছে রাজ্য খাদ্য দপ্তর৷

সোমবার এফসিআইয়ের কাছে চালের পুরো কোটা পায়নি খাদ্য দপ্তর৷ খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানান, প্রতিমাসের জন্য ৩ লক্ষ ৯ হাজার মেট্রিক টন চাল দরকার৷ সেই জায়গায় এদিন পর্যন্ত এফসিআইয়ের কাছ থেকে ১ লক্ষ ৮৯ হাজার মেট্রিক টন চাল পাওয়া গিয়েছে৷ বাকি কোটার চাল পাওয়া যায়নি৷

- Advertisement -

যদিও এফসিআইয়ের পূর্বাঞ্চলের জেনারেল ম্যানেজার এস কে গোয়েন বলেছেন, তাঁদের গোডাউনে চালের অভাব নেই৷ রাজ্যেই কোটার চাল এখনও তুলতে পারেনি৷ তাছাড়া চলতি এপ্রিলের কোটার চাল এ পর্যন্ত রাজ্য যা তুলেছে, তা মানুষের কাছে বণ্টন কেন এখনও শুরু করা হয়নি৷ এই প্রশ্নই তুলেছেন তিনি৷

সবমিলিয়ে চাল-ডাল নিয়ে রাজ্য এবং এফসিআইয়ে মধ্যে এই চাপান-উতোরে জটিলতা বেড়েই চলেছে৷ কেন্দ্রের হয়ে এই পর্যন্ত প্রায় ১৫ হাজার মেট্রিক টনের জায়গায় নাফেড রাজ্যকে মাত্র ১ হাজার ৮৩৪ মেট্রিক টন ডাল সরবরাহ করেছে৷ রাজ্য সেই ডাল চাহিদামতো না পাওয়ায় নাফেডের গোডাউনে ফেলে রেখেছে বলে খাদ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন৷ চাল-ডাল নিয়ে এই জটিলতা পরিস্থিতির কথা শেষ পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রী ও মুখ্যসচিবের কানেও গিয়ে পৌঁছেছে৷

খাদ্যমন্ত্রী অবশ্য জানিয়েছেন, এফসিআই চাল পুরো না দিতে পারলে রাজ্যকেই ব্যবস্থা করবে হবে৷ যদিও এফসিআই জানাচ্ছে, চালের অভাব নেই৷ রাজ্য তুলে নিতে পারে৷ পাশাপাশি খাদ্যমন্ত্রীও জানাচ্ছেন, রেলের রেক আসেনি৷ তাই এফসিআই কোটার পুরো চাল দিতে পারছে না৷