বিধানসভা উপনির্বাচনের আগে কালিয়াগঞ্জে এল কেন্দ্রীয় বাহিনী

292

কালিয়াগঞ্জ, ১০ নভেম্বর : কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা উপনির্বাচন শান্তিপূর্ন রাখতে চলে এল কেন্দ্রীয় বাহিনী। শনিবার রাতে এক কোম্পানি বাহিনী পৌঁছায় কালিয়াগঞ্জে। রবিবার আরও তিন কোম্পানি বাহিনী আসছে। মোট চার কোম্পানি বাহিনীর মধ্যে এক কোম্পানি মহিলা জওয়ান। কালিয়াগঞ্জ থানা সূত্রে জানা গেছে আগাম আসা এই কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে ভোট পর্যন্ত। ২৫ নভেম্বর ভোট গ্রহণ ও ২৮ নভেম্বর গণনা হবে কালিয়াগঞ্জ উপনির্বাচনে। রবিবার কালিয়াগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় রুটমার্চ করেন জওয়ানরা। কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা উপনির্বাচনে  ২৭০টি ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে ২লক্ষ ৬৯হাজার ৬৬৯ জন ভোটার রয়েছেন। সূত্রের খবর, বিরোধীদের দাবি মেনে কালিয়াগঞ্জের সমস্ত বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী রাখছে কমিশন। এজন্য মোট ১৬ কোম্পানি বাহিনী কালিয়াগঞ্জে পাঠাচ্ছে কমিশন। ভোটের দিন বুথ রক্ষার পাশাপাশি ক্যুইক রেসপন্স টিম ও সেক্টর টিমে রাখা হতে পারে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের।
রবিবার বিজেপির জেলা সভাপতি নির্মল দাম বলেন, ‘সন্ত্রাস ও ভীতি মুক্ত অবাধ ভোট করাতে চাই কেন্দ্রীয় বাহিনী। বাংলার পুলিশে মানুষের ভরসা নেই। তাই আমাদের দাবি ছিল কেন্দ্রীয় বাহিনীর। সেই দাবি মেনে নির্বাচন কমিশন পদক্ষেপ করায় আমরা খুশি।’ কংগ্রেসের কালিয়াগঞ্জ ব্লক সভাপতি সুজিত দত্ত বলেন, ‘আমাদের দাবি ছিল কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে ভোটের। কমিশন এব্যাপারে সঠিক পদক্ষেপ করেছে। আমরা সন্তুষ্ট।’
কমিশনের তরফে কালিয়াগঞ্জের উপনির্বাচনে কেন্দ্রীয় বাহিনী পাঠানোর সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী তপন দেবসিংহ। তিনি বলেন, ‘এই বাহিনী আসায় আমাদের চিন্তা কমবে। কারণ পায়ের তলায় মাটি আলগা হয়েছে বুঝে বিজেপি অশান্তি করার সুযোগ খু্ঁজছে। বাহিনী থাকলে সেই অশান্তির সুযোগ পাবে না বিজেপি। তাই আমরা খুশি।’