একই গ্রামের দুই অংশকে জুড়তে উদ্যোগ চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদের

73

মেখলিগঞ্জ: মেখলিগঞ্জ ব্লকের বাগডোকরা-ফুলকাডাবড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী ৭০ মেখলিগঞ্জের মাঝখান দিয়ে বয়ে যাওয়া সুতি নদী গ্রামটিকে দু’ভাগে ভাগ করেছে। ফলে নদীর ওপারে থাকা সাধারণ মানুষকে নিকটবর্তী মেখলিগঞ্জ শহরে আসতে অনেকটা পথ ঘুরতে হয়। অভিযোগ, এই নিয়ে চরম ভোগান্তিতে রয়েছেন এলাকার মানুষ। সমস্যা মেটাতে এবার নদীর ওপর কালভার্ট তৈরি করে ৭০ মেখলিগঞ্জ গ্রামের দুই অংশকে জুড়তে উদ্যোগ নিল চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদ।

মঙ্গলবার এই কাজের সূচনা করে চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান পরেশচন্দ্র অধিকারী জানান, স্থানীয়দের দাবিকে গুরুত্ব দিয়ে এখানে কালভার্ট তৈরি করা হচ্ছে। কালভার্ট তৈরি হলে সংশ্লিষ্ট এলাকার মানুষের সুবিধা হবে। দ্রুত কাজটি সম্পন্ন করার চেষ্টা চলছে। উন্নয়ন পর্ষদের তরফে কালভার্ট তৈরির জন্য পঁচিশ লক্ষ টাকা বরাদ্দ হয়েছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, কালভার্ট তৈরি হলে সীমান্তবাসীর পাশাপাশি ওই এলাকায় প্রহরার দায়িত্বে থাকা সীমান্তরক্ষীবাহিনীরও সুবিধা হবে।

- Advertisement -