শিলিগুড়ি, ৮ মেঃ উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই কর্মীকে মারধরের অভিযোগ উঠল পড়ুয়াদের বিরুদ্ধে। দোষী পড়ুয়াদের শাস্তির দাবিতে পালটা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মীরা। জানা গিয়েছে, জাতি বিদ্বেষের অভিযোগ তুলে বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কাছে একটি স্মারকলিপি দিতে যান বাংলা বিভাগের পড়ুয়ারা। তবে কতজন স্মারকলিপি দিতে যাবেন তা নিয়ে পড়ুয়াদের মধ্যে বচসা বাধে। সেই সময় চারজন পড়ুয়াকে উপাচার্যের কাছে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়। কিন্তু সে কথা না শুনে পড়ুয়ারা সবাই একসঙ্গে উপাচার্যের ঘরে ঢুকতে যান। এতে বাধা দিতে গেলে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা গোপাল সন্ন্যাসীকে পড়ুয়ারা মারধর করেন বলে অভিযোগ। এরপর সেখানে উপাচার্যের সহকারী ড. বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায় এলে তাঁকেও মারধর করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি জানতে পেরে বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য কর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে পড়ুয়াদের আটকে রেখে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। দোষী পড়ুয়াদের শাস্তির দাবি জানান তাঁরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে মাটিগাড়া থানার পুলিশ বাহিনী পৌঁছে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া চেষ্টা চালাচ্ছে। এরইমাঝে অসুস্থ হয়ে পড়েন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. সুবীরেশ ভট্টাচার্য। এখনও উত্তেজনা রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ে।