রোগীর মৃত্যু ঘিরে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজে উত্তেজনা

88

রায়গঞ্জ: রোগী মৃত্যুকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার উত্তেজনা ছড়াল রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন সকালে রায়গঞ্জ থানার অধীন খলসি গ্রামের বাসিন্দা রমেশ বৈশ্য (৫০) শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা নিয়ে মেডিকেল কলেজে ও হাসপাতালে আসেন। জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাঁকে কোভিড ওয়ার্ডে পাঠিয়ে দেন।

সেখানে একটি ইনজেকশন দেওয়ার পরই রমেশবাবুর মৃত্যু হয় বলে অভিযোগ। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন মৃতের পরিবারের সদস্যরা। স্বাস্থ্যকর্মী ও নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে তাঁদের হাতাহাতি শুরু হয়। ঘটনাকে ঘিরে এদিন উত্তেজনা ছড়ায় হাসপাতাল ক্যাম্পাসে। পরে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি সামাল দেয়।

- Advertisement -

মৃতের ছেলে মিঠুন বৈশ্য বলেন, ’ বাবার শ্বাসকষ্ট ছিল। সম্প্রতি তা বেড়ে গিয়েছিল। ১৫ মে মহারাজাহাট ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে লালার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এদিন সকালে বাবার প্রচন্ড শ্বাসকষ্ট হয়। তাঁকে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাই। জরুরি বিভাগের চিকিৎসক বাবাকে কোভিড ওয়ার্ডে পাঠিয়ে দেন। ১০ মিনিটের মধ্যে স্বাস্থ্যকর্মীরা খবর দেন বাবা মারা গিয়েছেন।‘ মৃতের স্ত্রী ভারতী বৈশ্যের অভিযোগ, ’আমার স্বামীকে চিকিৎসক ও নার্সরা মেরে ফেলেছেন। তাই আমরা বিক্ষোভ দেখিয়েছি। কর্তব্যরত নার্স ও চিকিৎসকের বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করব।‘

রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সহকারী অধ্যক্ষ প্রিয়ঙ্কর রায় এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি। তবে মেডিকেল কলেজের নোডাল অফিসার বিপ্লব হালদার বলেন, ‘চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা দিনরাত এক করে পরিষেবা দিয়ে চলেছেন। চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মৃতের পরিবারের সদস্যরা যা অভিযোগ করছেন, তা ঠিক নয়।‘ রায়গঞ্জ থানার তরফে জানানো হয়েছে, এখনও পর্যন্ত এবিষয়ে অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। পুলিশ সুপার সুমিত কুমার বলেন, ‘অপ্রীতিকর ঘটনা রুখতে হাসপাতাল চত্বরে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।‘