অশান্তির জেরে স্থগিত টিকাকরণ, ভ্যাকসিন না পেয়েই ফিরলেন ১৬৫ জন

43

রায়গঞ্জ: গুটিকয় স্বাস্থ্যকর্মীর মদতে পেছন দরজা দিয়ে চলছে টিকা প্রদান। অন্যদিকে, সকাল থেকে লম্বা লাইনে দাঁড়িয়েও টিকা না পেয়ে ফিরতে হচ্ছে অনেককেই। এমনই অভিযোগে বুধবার রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল চত্বরে বিক্ষোভ দেখালেন টিকার লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা আমজনতা। ধস্তাধস্তিও হয়। অভিযোগ, বিক্ষোভ চলাকালে লাঠিচার্জ পুলিশ করে। এই পরিস্থিতিতে সাময়িকভাবে টিকাকরণ স্থগিত রাখা হয় কর্তৃপক্ষের তরফে। স্বাভাবিকভাবেই সকাল থেকে ঠায় দাঁড়িয়ে টিকা না পেয়ে ফিরতে হল প্রায় ১৬৫ জনকে।

অভিযোগ, টোকেম হাতে সকাল থেকে টিকার নাইলে দাঁড়ালেও বঞ্চিত থেকে যাচ্ছেন অনেকেই। অন্যদিকে, টোকেন না পাওয়া সত্ত্বেও গুটিকয় স্বাস্থ্যকর্মীর দৌলতে টিকা পেয়ে যাচ্ছেন অনেকেই। ঘটনায় এদিন প্রতিবাদ জানান টিকার লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা সকলেই। ঘটনায় গোল বেধে যায়। শুরু হয় ধস্তাধস্তি। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অভিযোগ, ধস্তাধস্তি চলাকালে একদল ব্যক্তি স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর চড়াও হন। এদিকে খবর পেয়ে পরিস্থিতি সামাল ঘটনাস্থলে পৌঁছোয় রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

- Advertisement -

রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের নোডাল অফিসার বিপ্লব হালদার বলেন, ‘কোনও বিক্ষোভ হয়নি। এছাড়া আজকে ছুটির দিন ছিল, ফলে অনেক আধিকারিক আসেননি। এবিষয়ে আমি কোনও মন্তব্য করব না।, যদিও মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের এক আধিকারিক বলেন, ‘এদিন স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলা চালানো হয়। তাতে কয়েকজন জখম হয়েছেন। ফলে টিকাকরণ স্থগিত রাখা হয়েছে। নিরাপত্তা না পেলে ভ্যাকসিন সরবরাহ করা অসম্ভব।’

অন্যদিকে, লাঠিচার্জের অভিযোগ এড়িয়ে রায়গঞ্জ পুলিশ সুপার সুমিত কুমার বলেন, ‘ভ্যাকসিন নিয়ে একটা সমস্যা হয়েছিল। উত্তেজিতদের সামলাতে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে।’