ভোটের আগে সীমান্ত সিল বাড়ানো হবে চেকিং, নির্দেশ কমিশনের

95

আসানসোল: নির্বাচন কমিশনের নির্দেশ মেনে শুক্রবার আসানসোলের সার্কিট হাউসে আন্তঃরাজ্য পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের আধিকারিকদের মধ্যে একটি উচ্চ পর্যায়ের সমন্বয় বৈঠক হয়। এদিনের বৈঠকে আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ঝাড়খন্ড ও বাংলার সীমান্তবর্তী ধানবাদ ও জামতারা জেলাগুলির অপরাধ নিয়ন্ত্রণে অপরাধীদের গ্রেপ্তার করতে সমন্বয় রেখে কাজ করা হবে। সেইসঙ্গে দুই রাজ্যের সীমান্তে যে চেকপোস্টগুলি আছে সেখান দিয়ে আগ্নেয়াস্ত্র, বোমা, মাদকদ্রব্য বেআইনভাবে টাকা নিয়ে কেউ যাতায়াত করছে কিনা তার দেখতে ২৪ ঘন্টা বিশেষ নজরদারী করা হবে। সীমান্তের বাইরে অন্য কোন জায়গা দিয়ে দুষ্কৃতিরা ঢুকতে পারে কিনা তা নিয়েও আলোচনা করা হয়েছে এদিনের বৈঠকে। এছাড়াও ঠিক হয়েছে নির্বাচনের আগে দুই রাজ্যের সীমান্ত সিল করা হবে।

এই বৈঠকের পরে আসানসোল দূর্গাপুরের পুলিশ কমিশনার সুকেশ কুমার জৈন ও পশ্চিম বর্ধমানের জেলাশাসক পূর্ণেন্দু কুমার মাজি বলেন, ‘এদিনের উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে ঝাড়খণ্ডের দুমকার ডিআইজি, ধানবাদের এসপি এবং জামতাড়ার পুলিশ সুপার ও ওই দুই জেলার জেলাশাসক এবং সব স্তরের পুলিশ আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন। আমরা বলেছি বর্তমানে দুই রাজ্যের সীমান্ত এলাকায় নটি চেক পয়েন্ট আছে। সেখানে ইতিমধ্যেই নাকা চেকিং শুরু হয়েছে। সেই চেকিং আরো বাড়াতে হবে। এই জেলার ভোটের আগেই কবে সীমান্ত সিল করা হবে তাও আগাম জানিয়ে দেওয়া হবে।’ জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, ভোটের সম্ভবত দুদিন বা একদিন আগে তা করা হবে।

- Advertisement -