চ্যাম্পিয়ন্স লিগ কোটার আশায় চেলসি

প্রতীকী ছবি।

লন্ডন : আগামী মরশুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের যোগ্যতা অর্জনের আরও কাছে টমাস টুচেলের চেলসি। মঙ্গলবার রাতে বদলার ম্যাচে লেস্টার সিটিকে ২-১ গোলে হারিয়েছে তারা। তবে ম্যাঞ্চেস্টারের জন্য দিনটা ভাল গেল না। ব্রাইটনের কাছে পেপ গুয়ার্দিওলার সিটি হারল ২-৩ গোলে। অবনমনের আওতায় থাকা ফুলহ্যামের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করল ওলে গানার সোলসায়ারের ইউনাইটেড।

প্রিমিয়ার লিগে শেষ ৬ ম্যাচে লেস্টারকে হারাতে পারেনি চেলসি। তার উপর দিন তিনেক আগে এফএ কাপের ফাইনালে এই প্রতিপক্ষের কাছেই হেরেছে তারা। এদিন অবশ্য প্রথমার্ধে জোড়া ধাক্কা খায় চেলসি। হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট লাগার ভয়ে ৩২ মিনিটে কোচকে বলে মাঠ ছাড়েন এনগলো কান্তে। মিনিট তিনেকের মধ্যে টিমো ওয়ের্নারের গোল ভিডিও দেখে বাতিল করে রেফারি। তবে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে অ্যান্টোনিও রুডিগার এগিয়ে দেন চেলসিকে। ৬৫ মিনিটে ওয়ের্নারকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় লন্ডনের দলটি। সুযোগ কাজে লাগান জর্জিনহো। মিনিট দশেক পর কেলেচি ইহানাচো ব্যবধান কমালেও ম্যাচে ফিরতে পারেনি লেস্টার।

- Advertisement -

দীর্ঘদিন পর সমর্থকরা ফিরেছিলেন ওল্ড ট্র‌্যাফোর্ডের গ্যালারিতে। মালিক গ্লেজার্স পরিবারের বিরুদ্ধে গ্যালারি থেকে প্রতিবাদ জানালেন বহু সমর্থকই। ১৫ মিনিটে এডিনসন কাভানির বিষ্ময়-গোলে এগিয়ে গিয়েছিল ইউনাইটেড। গোলরক্ষক ডেভিড ডে গিয়ার বাড়ানো বল না ধরেই কাভানির উদ্দ্যেশ্যে পাঠিয়ে দেন ব্রুনো ফার্নান্ডেজ। বিপক্ষ গোলরক্ষককে এগিয়ে আসতে দেখে বেশ দূর থেকেই বলটা গোল লক্ষ্য করে চিপ করেন কাভানি। কিছুই করা ছিল না প্যারিস সাঁ জাঁ ও রিয়াল মাদ্রিদের প্রাক্তনী আলফোন্সে আরেওলার। ৭৬ মিনিটে জো ব্রায়ানের গোলে ১ পয়েন্ট পায় ফুলহ্যাম। এদিন ম্যাচ শেষে প্যালেস্তাইনের পতাকা হাতে দেখা গিয়েছে ইউনাইটেডের পল পোগবা ও আমাদ দিয়ালোকে।

শুরুতেই ১০ জন হয়ে গিয়েও ব্রাইটনের বিরুদ্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে গিয়েছিল সিটি। ৩ মিনিটে ইকে গুন্দোগানের গোল লিড এনে দেয়। তবে ১০ মিনিটে জোয়াও ক্যান্সেলো সরাসরি লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়ায় বিপাকে পড়ে সিটি। সেই ধাক্কা সামলে ৪৮ মিনিটে ফিল ফোডেনের গোল লিড দ্বিগুণ করে। ৫০ মিনিটে লিয়ান্দ্রো ট্রোসার্ডের গোলে পাল্টা দেয় ব্রাইটন। ৭২ মিনিটে অ্যাডাম ওয়েবস্টার এবং ৭৬ মিনিটে ড্যান বুর্নের গোলে তিন পয়েন্ট পায় তারা। আগেই লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাওয়া এই ম্যাচের ফল সিটির জন্য গুরুত্বহীন।