বিশ্বভারতী মামলায় প্রধান বিচারপতির সমালোচনার মুখে রাজ্য

363

কলকাতা: বিশ্বভারতীর মেলা প্রাঙ্গণে প্রাচীর তোলার উপর স্থগিতাদেশ চেয়ে রাজ্য সরকারের তরফে কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চে একটি আবেদন করা হয়েছিল। সেই আবেদন মঙ্গলবার শুনানির জন্য উঠলে পুলিশ ও রাজ্য সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন প্রধান বিচারপতি টিবি রাধাকৃষ্ণাণ। তিনি বলেন, ‘জনতা চাইলেই আইন হাতে তুলে নিতে পারে না। আর পুলিশ যদি তাতে বাধা দিতে না পারে তাহলে তাদের ওই ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে হবে।’ এদিন রাজ্য সরকার চাইলেও হাইকোর্ট তাদের দাবি মেনে  স্থগিতাদেশ দেয়নি। তবে এদিন বিচারপতিদ্বয় ওই মামলায় তাঁদের রায়ও ঘোষণা করেননি। বুধবার পর্যন্ত তা স্থগিত রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, পরিবেশ আদালতের তরফে ইতিপূর্বে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল, পরিবেশ রক্ষার সুবাদে সেখানে পৌষ মেলা করা যাবে না। এদিন সেই ব্যাপারে মন্তব্য করতে গিয়ে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘মেলা বন্ধ করার ব্যাপারে পরিবেশ আদালত কোনও নির্দেশ দিয়ে থাকলে তার সংশোধন বা খারিজ করার এক্তিয়ার হাইকোর্টের আছে।’ তিনি বলেন, ‘মেলার সঙ্গে বহু মানুষের আবেগ জড়িয়ে আছে। কাজে চাইলেই তা বাতিল করে দেওয়া যায় না।’

- Advertisement -

মঙ্গলবার বিশ্বভারতীর প্রাচীর ভাঙা কাণ্ডে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের কমিটি তাঁদের রিপোর্ট একটি সিল করা খামে আদালতে জমা দেন। হাইকোর্ট নিযুক্ত ওই কমিটির  অন্যতম সদস্য ছিলেন রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত। প্রধান বিচারপতি এদিন আক্ষেপ করে বলেন, ‘একদল লোক উশৃঙ্খলতার সঙ্গে বিশ্বভারতীর সম্পত্তি ভাঙচুর ও ধ্বংস করছে দেখেও পুলিশ যেভাবে হাত গুটিয়ে বসে ছিল তা নিতান্তই লজ্জাজনক।’ আগামীকাল বিচারপতিদ্বয় ওই মামলায় তাঁদের রায় ঘোষণা করবেন।