প্রধানমন্ত্রীর তিনঘণ্টার ভিডিও কনফারেন্সে বোবার মতো বসেছিলাম: মুখ্যমন্ত্রী

532

স্বরূপ বিশ্বাস, কলকাতা: বলতে চেয়েও প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্সে সোমবার কিছুই বলার সুযোগ পাননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ কী বলবেন তার ‘হোম ওয়ার্ক’ করেছিলেন৷ তবু না বলতে পারার আক্ষেপ পরে ক্ষোভের সুরেই জানিয়েছেন তিনি৷

প্রথমে বলেন, ‘আমরা (মুখ্যমন্ত্রীরা) ঠুঁটো জগন্নাথের মতো বসেছিলাম তিন ঘণ্টা৷’ পরে মুখ্যমন্ত্রী তা সংশোধন করে বলেন, ‘ঠুঁটো জগন্নাথ একটা কথার কথা৷ আমি দুঃখিত (কপালে হাত ঠেকিয়ে বলেন) তাঁকে আমরা প্রণাম করি, শ্রদ্ধা-ভক্তি করি৷ আসলে আমরা বোবা-কালার মতো বসেছিলাম৷ কালা বললে ভুল হবে, আমরা বোবার মতো বসেছিলাম৷ শুনেছি তিন ঘণ্টা৷ আমরা হাত-পা-মুখ বুজে বসেছিলাম৷ আমাদের কিছু বলতে দেওয়া হয়নি৷ কারও কোনও বলার সুযোগ ছিল না৷

- Advertisement -

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘নিশ্চয় ছোট রাজ্যগুলিকে বলার সুযোগ দেওয়া দরকার৷ দেওয়া উচিত৷ কিন্তু বড় রাজ্যগুলিরও তো কিছু বলার থাকতে পারে৷ যারা করোনায় সব থেকে বেশি সাফার করেছে৷ আমরা তো আমাদের কথা কিছু বলতে পারতাম৷ কিন্তু আমাদের বলতেই দেওয়া হয়নি৷’

এই প্রসঙ্গেই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এই যে কেন্দ্রীয় দল রাজ্যে এসেছে৷ এদের পাঠানোর যৌক্তিকতা কী? এটা বলতে পারতাম৷ কেউ সাহায্য করতে আসতেই পারে৷ তবে অসহযোগিতা করার জন্য নয়৷ কখনই নয়৷ এটা মেনে নেওয়া যায় না৷ একজন অফিসার কাজ করবে, না কি তাকে দশবার ডেকে পাঠানো হবে৷ তিনি রাজ্যের কোথায় করোনা রোগীর বেড নিয়ে খোঁজ রাখবেন৷ না রক্তের ব্যবস্থা করবেবন৷ তা না করে তাঁকে কেন্দ্রীয় দল দশবার ডেকে পাঠাচ্ছে৷ তিনি যাবেন? এটা কী জাস্টিস হচ্ছে?’