গালওয়ান উপত্যকায় স্থায়ী ঘাঁটি চিনের, ধরা পড়ল উপগ্রহ চিত্রে

782

লাদাখ: গালওয়ান উপত্যকায় প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর সামরিক গতিবিধি আরও বাড়াল চিন। ১৫ জুন হওয়া সংঘর্ষস্থলের কাছে বড় মাপের নির্মাণ কাজ চালানোর ছবি ধরা পড়ল উপগ্রহ চিত্রে।

উপগ্রহ চিত্রে দেখা গিয়েছে, গালওয়ান নদী উপত্যকায় পেট্রোলিং পয়েন্ট ১৪-এর কাছে একটি কাঠামো তৈরি করে ফেলেছে চিন। পাহাড়ের দেওয়াল কেটে রাস্তা বানানো হয়েছে। সেনাদের থাকার জায়গা তৈরি হয়েছে। মনে করা হচ্ছে, এই ছবি কেবল পয়েন্ট ১৪-র নয়, গালওয়ান উপত্যকার বড় অংশ জুড়েই দীর্ঘমেয়াদি নজরদারি পোস্ট বানানোর কাজ চালানোর জন্যই এই ব্যবস্থা।

- Advertisement -

নির্মাণকাজের বড় অংশই ভারতীয় অংশে হচ্ছে বলে অভিযোগ। যদিও এই বিষয়ে সেনার তরফে কোনও মন্তব্য করা হয়নি। অথচ, সেখানেই ম্যারাথন বৈঠক করেছিলেন দুই দেশের সেনা কমান্ডাররা। পারস্পরিক ঐক্যমতের ভিত্তিতে দু’দেশই সেনা সরাতে রাজি হয়। কিন্তু সেনা সরাতে রাজি হলেও চিন যেভাবে স্থায়ী ঘাঁটি গেড়েছে সেখান থেকে তাঁদের সরানো খুব একটা সহজ হবে না বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

প্রাক্তন সেনা কর্তাদের একটি বড় অংশ মনে করছেন, স্থায়ী কাঠামো তৈরি করে ফেলার পর সেখান থেকে চিনা সেনারা ফিরে যাবে, এমনটা ভাবা ভুল হবে। জানা গিয়েছে, চিনের সঙ্গে সীমান্ত ঘিরে যে উত্তেজনা তা নিয়ে কূটনৈতিক স্তরে বৈঠকে বসে দিল্লি। পূর্ব লাদাখের সীমান্ত পরিস্থিতি নিয়েও বিস্তর আলোচনা হয়। এবার কূটনীতিগত কৌশল অবলম্বন করেই ভারত নিজের জমি ফিরে পেতে সফল হবে কিনা তাই এখন দেখার।