২০ বছরে ৫টি মহামারি ছড়িয়েছে চিন, অভিযোগ আমেরিকার

454

ওয়াশিংটন: ২০ বছরে ৫টি মহামারি ছড়িয়েছে চিন-এমনটাই অভিযোগ তুলেছে আমেরিকা। উল্লেখ্য, বিশ্বে প্রতিদিনই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। সারা বিশ্বে এখনও পর্যন্ত ৪৩ লক্ষ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তারমধ্যে শুধু আমেরিকাতেই আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ১৪ লক্ষ। সেখানে এখনও পর্যন্ত ৮২ হাজারের বেশি মানুষ কোভিড ১৯-এর শিকার হয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুলেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা রবার্ট ও’ ব্রায়েন।

তাঁর অভিযোগ, ২০ বছরে চিন থেকে ৫টি মহামারি ছড়িয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে সার্স, এভিয়ান ফ্লু, সোয়াইন ফ্লু ও কোভিড ১৯। একটি দেশের জন্য গোটা বিশ্বকে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। কিন্তু এটা দীর্ঘদিন চলতে পারে না। এসব থামাতে হবে।

- Advertisement -

মঙ্গলবার তিনি বলেন, ‘আমরা জানি, করোনা ভাইরাস উহান থেকেই ছড়িয়েছে। সেখানকার ল্যাব বা কাঁচা মাংসের বাজার থেকে ভাইরাস ছড়ানোর একাধিক প্রমাণ রয়েছে। কিন্তু চিন সেটা কখনও স্বীকার করবে না।’ ৪টি মহামারির কথা উল্লেখ করলেও পঞ্চম মহামারি কোনটি, তা জানাননি রবার্ট ।

এখনও পর্যন্ত বিশ্বে করোনা সংক্রমণের জেরে প্রায় ৩ লক্ষ মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। করোনার প্রভাব সবচেয়ে বেশি পড়েছে আমেরিকায়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা রবার্ট ও ব্রায়েন জানান, কিভাবে করোনা ছড়িয়েছে, তা জানতে তদন্ত চলছে।

পাশাপাশি চিন মদতপুষ্ট হ্যাকাররা করোনা ভ্যাকসিনের গবেষণা হাতানোর চেষ্টা করছে-এমন অভিযোগও এনেছে আমেরিকা। যদিও সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছে চিন। চিনের বিদেশ দপ্তরের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের চিকিৎসা ও ভ্যাকসিন আবিষ্কারের ক্ষেত্রে আমরা সারা বিশ্বকে নেতৃত্ব দিচ্ছি। এই পরিস্থিতিতে আমেরিকার এই ধরনের মন্তব্য কোনওভাবেই সমর্থনযোগ্য নয়। এটা চিনকে বদনাম করার ষড়যন্ত্র।’

তবে সব মিলিয়ে এটা বলাই যায় যে, করোনা নিয়ে চিন-মার্কিন দ্বন্দ্ব আরও বাড়ল।