গালওয়ান থেকে সরল চিনা বাহিনী

284

নয়াদিল্লি: পূর্ব লাদাখের গালওয়ান নদীর উপত্যকায় ভারত ও চিন উভয়েই নিজেদের সেনা কমপক্ষে ১ কিলোমিটার পিছিয়ে নিয়েছে বলে খবর। সূত্রের খবর, উভয় পক্ষের সেনাদের মধ্যে একটি বাফার জোন তৈরি করা হয়েছে। তবে এটি দীর্ঘস্থায়ী এবং সত্যিকারের নিষেধাজ্ঞা জের কিনা তা নিশ্চিত করতে কিছু সময় অপেক্ষা করতে হবে। সুত্র আরও জানিয়েছে, নদী-বাঁকে বাঁধের ওপর অবৈধভাবে দখলকৃত জায়গায় চিনের সেনাদের নির্মিত অস্থায়ী কাঠামো সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গত শুক্রবার লাদাখের ফরোয়ার্ড পোস্টে পরিদর্শনে গিয়েছিলেন। সেই ঘটনার প্রায় তিন দিন পর গত ২৪ ঘন্টার মধ্যেই সেনার সরনের খবর এসেছে। শুক্রবারই প্রধানমন্ত্রী যেখানে কয়েক হাজার সেনাকে সম্বোধন করেছিলেন এবং নাম না করেই চিনকে সাবধান করেছিলেন। সেদিন প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, সম্প্রসারণবাদের যুগ শেষ হয়েছে। সম্প্রসারণবাদী শক্তিগুলি না হয় পরাজয় শিকার করুক নতুবা ফিরে যাক।

- Advertisement -

গ্যালওয়ান উপত্যকার সংঘর্ষের পর গত সপ্তাহে তৃতীয় দফায় আলোচনার জন্য ভারত ও চিন সেনাবাহিনীর কমান্ডাররা বৈঠক করেন। লেফটেন্যান্ট-জেনারেল-স্তরের এই বৈঠকে মে মাসের শুরুর দিকের সম্মুখ সমরসহ একসপ্তাহব্যাপী সংঘর্ষের পর, ভারত ও চিনের মধ্যে ডি-ফ্যাক্টো সীমান্ত নীতি নিয়ন্ত্রণ ও টানাপোড়ন হ্রাস করার বিষয়ে আলোচনা করেছে।

সম্প্রতি স্যাটেলাইট ছবিতে নিয়ন্ত্রণ রেখা সংলগ্ন একাধিকবার চিনা অনুপ্রবেশ এবং ভারী অস্ত্রশস্ত্রসহ চিনের নির্মাণকাজের প্রমাণ মিলেছে। গালওয়ান উপত্যকায় চিনের সেনারা অবৈধভাবে ৪২৩ মিটার ভারতীয় এলাকা দখল করেছে। এমনই হদিস মেলে স্যাটেলাইট চিত্রে। উল্লেখ্য, গত ১৫ জুন চিনের সেনাদের সঙ্গে সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় সেনা শহিদ হয়েছিলেন।