পাকা রাস্তার কাজ শুরু হওয়ায় খুশি চিতিয়ারডাঙ্গা

118

গৌতম সরকার, চ্যাংরাবান্ধা: অবশেষে শুক্রবার পাকা রাস্তার কাজ শুরু মেখলিগঞ্জ ব্লকের বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী চ্যাংরাবান্ধা গ্রামপঞ্চায়েতের ১৫৭ জামালদহ চিতিয়ারডাঙ্গা গ্রামে। এদিন এই কাজের সূচনা করেন চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান পরেশ চন্দ্র অধিকারী, মেখলিগঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি নিয়তি সরকার, কোচবিহার জেলা পরিষদের সংশ্লিষ্ট এলাকার সদস্যা প্রতিমা দেব সহ প্রমূখ।

সম্প্রতি এই এলাকায় দুটি পাকা রাস্তার কাজেরই উদ্বোধন করা হয়ে গিয়েছে। প্রথম পাকা রাস্তার উদ্বোধন হলেও এটা নিয়ে স্থানীয়দের একাংশ তেমন সন্তুষ্ট ছিলেন না। অভিযোগ তাঁরা নাকি ভরসা পাচ্ছিলেন না। তাদের বক্তব্য, এলাকায় পাকা রাস্তার দাবিতে নানা আন্দোলনের পাশাপাশি ভোট বয়কটেরও হুমকি দিতে হয়েছিল। এরপর বিভিন্ন মহলের তরফে আশ্বাস মেলার পর ভোট বয়কট আন্দোলন প্রত্যাহার করে নেবার পরেও কেটে গিয়েছে অনেকটা সময়। তাই উদ্বোধন নিয়েও তাদের মধ্যে একটা প্রশ্ন জেগেই ছিল। অবশেষে এদিন কাজের সূচনা হওয়াতে খুশি হয়েছেন গ্রামবাসী। এই কাজ শুরু করতে পারার বিষয়টি নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন পরেশবাবু, প্রতিমাদেবীদের মত জনপ্রতিনিধিরাও। পরেশবাবু বলেন, ‘এই গ্রামে পাকা রাস্তার বিষয়ে স্থানীয়দের অনেকদিনের দাবি ছিল। দাবি নিয়ে আমার কাছেও গিয়েছিলেন একাধিকবার। অবশেষে কাজ শুরু হওয়ায় আমাদেরও ভালো লাগছে। খুশি স্থানীয়রাও।‘ প্রতিমা দেব বলেন, ‘শুক্রবার চিতিয়ারডাঙ্গা গ্রামে দুটি পাকা রাস্তার কাজের শুভরাম্ভ করা হয়েছে।দ্রুত যাতে কাজ দুটি সম্পন্ন করা যায় সেইদিকটিতেও লক্ষ্য রাখা হচ্ছে।‘

- Advertisement -

প্রশাসন সূত্রেই খবর, চ্যাংরাবান্ধা-মাথাভাঙ্গা রাজ্য সড়কের পাশের কালিবাড়ি মোড় থেকে ৬৫০ মিটার রাস্তার কাজ করা হছে পথশ্রী প্রকল্পের মাধ্যমে। এই কাজের জন্য ২৭ লক্ষ টাকা বরাদ্দ হয়েছে। বাকি ১৮০০ মিটার রাস্তার বিষয়টি পাড়ায় সমাধানে ওঠার পরেই এই কাজের জন্য ৮৪ লক্ষের কিছু বেশি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। স্থানীয়রাও দ্রুত পাকা রাস্তার কাজ দুটি শেষ করার দাবি করেছেন।