গয়না ভর্তি ব্যাগ ফিরিয়ে সততার নজির সিভিক ভলান্টিয়ারের

327

মালদা: সোনার গয়না ভর্তি ব্যাগ রাস্তায় কুড়িয়ে পেয়ে মালিককে ফিরিয়ে দিয়ে সততার প্রমাণ দিল ট্রাফিকে কর্তব্যরত এক সিভিক ভলান্টিয়ার। রবিবার সকালে মালদা শহরের সুকান্ত মোড়ে ব্যস্ততম রাস্তায় সোনার গয়না ভর্তি একটি ব্যাগ কুড়িয়ে পান সিভিক ভলান্টিয়ার রাজকুমার পাহাড়ি। ঘটনার কিছুক্ষণ পরই এক দম্পতি ওই ব্যাগের খোঁজে সুকান্ত মোরে যায়। তখনই সিভিক ভলান্টিয়ার তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে। দম্পত্তির সঙ্গে কথা বলে সিভিক ভলান্টিয়ার বুঝতে পারেন ওই ব্যাগটি তাদেরই। সুকান্ত মোরে ট্রাফিক কন্ট্রোল রুমে ওই দম্পতিকে নিয়ে গিয়ে ট্রাফিক কর্তাদের মাধ্যমে ব্যাগটি তাদের ফিরিয়ে দেন। পাশাপাশি ওই দম্পতির একটি মোবাইল ফোন খোয়া যায়। মোবাইল ফোনটি ফিরিয়ে না পেলেও সোনার গয়না ফিরে পেয়ে খুশি ওই দম্পতি। সুকান্ত মোরে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ ও সিভিক ভলান্টিয়ারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তাঁরা।

মালদা শহরের পুড়াটুলি সদরঘাট এলাকার বাসিন্দা জয়ন্ত সরকার এদিন সকালে স্ত্রীকে নিয়ে শহরের গয়েশপুর থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। স্ত্রী মামনি সরকারের ব্যাগে মোবাইল ফোন, সোনার গয়না ও নগদ টাকা ছিল। ব্যাগের চেইন খোলা অবস্থায় বাইকে করে আসছিলেন দম্পতি। রাস্তায় মোবাইল ফোন সোনার অলংকার সহ নগদ টাকা পড়ে যায়। পুরাটুলি সদরঘাটের বাড়ির কাছে গিয়ে দম্পতি লক্ষ্য করে তাদের ব্যাগের চেইন খোলা। ব্যাগের ভেতরে কিছুই নেই। তারপরে রাস্তা ধরে খোঁজাখুঁজি শুরু করে ব্যাগের সামগ্রী। কিন্তু কোথাও কিছু পায়নি। সুকান্ত মোরে দম্পতিকে রাস্তায় কিছু খোঁজাখুঁজি করতে দেখে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশরা তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে। তার আগেই রাস্তায় সুকান্ত মোড়ে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশের এক সিভিক ভলেন্টিয়ার সোনার অলংকারের ব্যাগটি কুড়িয়ে পায়। ওই দম্পতিকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সমস্ত তথ্য সঠিক পাওয়ায় তাদের হাতে ব্যগটি তুলে দেয় ট্রাফিক পুলিশ।

- Advertisement -