তৃণমূলের মিছিল থেকে সংঘর্ষ, কালিয়াচকে ধুন্ধুমার

128

কালিয়াচক: প্রধান নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল কালিয়াচক। চলল গুলি ও বোমা। পুলিশের উপর বোমাবাজি করা হয় বলে অভিযোগ। অপরদিকে পুলিশের পক্ষ থেকে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি চালানো হয় বলে অভিযোগ। ঘটনায় দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে কালিয়াচক থানার পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে কালিয়াচকের সুলতানগঞ্জ মোড়ে। ঘটনার জেরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। তৃণমূল নেতা তৃণমূল নেতা কাল্লু শেখের বাড়িতে পুলিশ ভাঙচুর চালায় বলে অভিযোগ। কালিয়াচক থানার আইসি মদন মোহন রায় জানিয়েছেন, মিছিলের লোকজন পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে বোমা বাজি করে। ফলে ৪ জন পুলিশ কর্মী আহত হয়েছেন। তাদের স্থানীয় সিলামপুর আমিন হাসপাতালে চিকিৎসা করানো হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার ছিল কালিয়াচক এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান নির্বাচনের দিন। বিকেল নাগাদ প্রধান নির্বাচনের কাজ শেষ হয়। তৃণমূলের আমিরুদ্দিনকে সরিয়ে তৃণমূলের নতুন প্রধান হন তৃণমূলের জ্যোতি শেখ। তারপরই উৎসবের মেজাজে মেতে উঠে তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের একাংশ। পঞ্চায়েত থেকে বেরিয়ে আবির খেলতে খেলতে মিছিল করে তারা পৌঁছে যায় কালিয়াচক কলেজ মোড়ে। সেখানে ব্যাপক স্লোগান চলতে থাকে। জাতীয় সড়কের উপরে আবির খেলে পটকা ফাটাতে শুরু করে। তারপরেই সেখানে উপস্থিত হয়ে কালিয়াচক থানার পুলিশ মিছিলটিকে জাতীয় সড়ক থেকে নামিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। সেই সময়ই পুলিশের গাড়ির উপর পটকা ফাটানো হয়। প্রায় চার জন পুলিশ কর্মী আহত হন বলে পুলিশের অভিযোগ। ঘটনার খবর জানতে পেরে কালিয়াচক থানার আইসির নেতৃত্বে বিশাল পুলিশবাহিনী সাদা পোশাকে কলেজ মোড়ে উপস্থিত হয়। শুরু হয় লাঠিচার্জ। এরপরই বিক্ষিপ্তভাবে পুলিশের উপর ইঁট পাথর ছুড়তে শুরু করেন মিছিলকারী তৃণমূলের কর্মী সমর্থকরা। মিছিলের লোকজনকে সরিয়ে দিতে পুলিশ শুন্যে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি চালায় বলে অভিযোগ। ঘটনায় তৃণমূল নেতা কাল্লু শেখকে গ্রেফতার করা হয়। কালিয়াচক এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা হয় মূলত কাল্লু শেখের নেতৃত্বে। তাই কাল্লু শেখের এর বাড়িতে গিয়ে পুলিশ ব্যাপক ভাঙচুর চালায় বলে অভিযোগ।

- Advertisement -